অন্যমনস্ক? মনোযোগ বৃদ্ধির দোয়া ও বিশেষ কৌশল

383

সব কিছু মনে রাখা কারও পক্ষেই সম্ভব নয়, তবে যদি খুব বেশি ভুল হতে থাকে তা হয়ত খারাপ প্রভাব ফেলবে আপনার ব্যক্তিজীবনে, এমনকি প্রশ্নবিদ্ধ করবে আপনার ব্যক্তিত্বকে। তাই বরং আসুন কয়েকটি নিয়ম মেনে চললে মনোযোগ বৃদ্ধি পাবে!

ঘন ঘন ভুলে যাচ্ছেন, অন্যমনস্কতা? ‘নীরব স্ট্রোকের’ শিকার হচ্ছেন না তো?

অন্যমনস্কতা স্ট্রোকের ঝুঁকি বাড়ায়

আপনি কি হামেশাই অন্যমনস্ক হয়ে পড়েন? বিষয় থেকে নিমেষেই সরে যান বা সম্পূর্ণ ভুলে যান? গবেষকরা বলছেন এটি ‘নীরব স্ট্রোক’ (Silent Stroke)-এর লক্ষণ। ডিমেনশিয়া এবং স্ট্রোকের একটি প্রধান কারণ হল এই ‘নীরব স্ট্রোক’। সেরিব্রাল স্মল ভেসেল ডিসিজ নামে পরিচিত এই রোগটি আসলে বয়স বৃদ্ধির সবচেয়ে সাধারণ স্নায়বিক এক রোগ।

এই ধরনের স্ট্রোকের কারণে মস্তিষ্কের রক্ত ​​প্রবাহে পরিবর্তন ঘটে এবং মস্তিষ্কের সাদা বস্তু (শরীরের নানা অঞ্চলের মধ্যে যোগাযোগের জন্য দায়ী) ক্ষতিগ্রস্ত হয়, যা সময়ের সাথে সাথে স্মৃতি শক্তি এবং অন্যান্য কার্যকলাপের সমস্যা সৃষ্টি করতে পারে। 

অন্যমনস্ক হওয়ার কারণ

অ্যাটেনশ্‌ন ডেফিসিট হাইপার অ্যাকটিভ ডিসওর্ডার থাকলে সাধারণত বাচ্চাদের এধরনের সমস্যা হয়। তারা কোনো কাজেই মনসংযোগ ধরে রাখতে পারে না।

অবসেসিভ কমপালসিভ ডিসওর্ডার সাধারণত বড়দের মধ্যে দেখা যায়। এরা একটা কাজ করতে করতে অন্য কাজ নিয়ে চিন্তা-ভাবনা করে। অনেক অপ্রয়োজনীয় চিন্তাও এদের মাথায় ঘোরে।

আরো পড়ুন: এক প্যাকেট কনডমের দাম ৬৪,০০০ টাকা!

ডিপ্রেশন থেকেও এই সমস্যা হতে পারে।

সিজোফ্রেনিয়া

অ্যাংজাই ডিসওর্ডার

মনোযোগ বৃদ্ধির উপায়

প্রযুক্তির উপর নির্ভরতা কমান

অন্যমনস্কতা দূর করতে সবার প্রথমে প্রয়োজন মস্তিষ্ক সচল রাখা। কখনো কি খেয়াল করেছেন, অতি পরিচিত বানানটি ভুলে গেছেন, কারণ টাইপ করার সময় শব্দের বানানটি চলে আসে সহজেই আপনার ব্যবহৃত স্মার্টফোনের অ্যাপসে? অবাক হচ্ছেন? গোল্ডস্মিথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ভোক্তা মনোবিজ্ঞানের প্রভাষক প্যাট্রিক ফগান বলেন, ‘প্রযুক্তি এমনকি আমাদের মস্তিষ্কের গঠন এবং কার্যপ্রনালী বদলে দিচ্ছে।’ পেশায় মনোবিজ্ঞানী সুজান গেস্ট মনে করেন, মানুষের উচিৎ মনে রাখার বিষয়গুলোর দায়িত্ব প্রযুক্তিকে না দেয়া, বরং নিজেই চেষ্টা করা। নতুবা সে অন্যমনস্ক হতে থাকবে।  

এক্সারসাইজ করুন

শুনতে হয়ত অদ্ভুত লাগছে যে, মনোযোগ বাড়াতে কেন জিমে যেতে হবে! কিন্তু জর্জিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের এক গবেষণায় দেখা গেছে, প্রতিদিন ২০ মিনিট শরীরচর্চা আপনার মনোযোগ বাড়াতে সাহায্য করে। নিউরো সাইকোলজিস্ট ড. অশোক জানসারির মতে, ‘শরিরচর্চা মনোযোগের উপর দারুণ প্রভাব ফেলে। এতে শরীর ভাল থাকে, রক্ত সঞ্চালন বাড়ে, এতে আপনার মস্তিষ্ক দ্রুত ফ্রেশ অক্সিজেন গ্রহণ করতে পারে।’ সুইডিশ আরেক গবেষণায় দেখা গেছে, শারীরিক কার্যকলাপ শেখার ক্ষমতা এবং মনে রাখার শক্তি বাড়ায়।  

সামাজিক হোন

বন্ধুদের সঙ্গে ঘুরে বেড়ানো কি মনোযোগ একাগ্র রাখতে সাহায্য করে? পিএলওএস মেডিসিনের এক গবেষণায় দেখা গেছে, মানুষ একা থাকলে বিষণ্নতায় পেয়ে বসে। বন্ধুদের সঙ্গে থাকা বা আত্মীয় স্বজনদের সঙ্গে সময় কাটানো তাকে অনেক দিকে মনোযোগী হতে বাধ্য করে। কারণ তখন একজন মানুষ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে বাধ্য হয়, কথা বলতে বা বন্ধুদের মন রাখতে তাদের দিকে মনোযোগ দিতে বাধ্য হয়।  

আরো পড়ুন: Romantic SMS | ৮০০০+ বাংলা (রোমান্টিক ❤ ভালোবাসার) এসএমএম

খেলাধুলা

মোবাইলের মনোযোগ বাড়ানোর গেমস নয়, খেলতে হবে বাস্তবে। ইন্টারনেটের যে খেলাগুলো দাবি করে যে সেগুলো মনোযোগ বাড়ায় সেগুলো আসলে কতটা কার্যকরী তা নিয়ে ব্যাপক বিতর্ক আছে। কিন্তু তার পরিবর্তে খেলতে পারেন চমৎকার সব খেলা, যেমন দাবা। দাবা এমন একটি খেলা যা আপনাকে চিন্তা করতে বাধ্য করবে। মস্তিষ্ক কাজে লাগাতে, কৌশলী হতে বাধ্য করবে। এছাড়া শব্দ নিয়ে খেলাসহ আরো অনেক খেলা আছে যা মনকে একাগ্র করে।  

বাদ্যযন্ত্র বাজাতে শিখুন

সঙ্গীতের একটা নির্দিষ্ট তাল আছে। নিয়ম আছে। নিয়মিত কোন বাদ্যযন্ত্রের অনুশীলন আপনার মনকে প্রশান্ত করবে, মস্তিষ্ককে এক জায়গায় কেন্দ্রীভূত করবে। ইউনিভার্সিটি অব এডিনবার্গ এর গবেষণায় দেখা গেছে, নতুন করে কোনো বাদ্যযন্ত্রের শিক্ষা মনের বিভাজন কমায়। একটি নতুন চ্যালেঞ্জ হিসেবে এই প্রচেষ্টা চালাতে পারেন। যদি সঙ্গীত আপনার প্রিয় না হয়, সেক্ষেত্রে ভাষা শিখতে পারেন। নতুন একটি ভাষা আপনাকে কাজেও লাগবে আবার মনোযোগও বাড়াতে সাহায্য করবে।

মনোযোগ বৃদ্ধির দোয়া

ইমাম আহমদ ও তিরমিজি (রহ.) সহিহ সূত্রে বর্ণনা করেছেন, সা‘দ ইবন আবী ওয়াক্কাস (রা.) থেকে বর্ণিত হয়েছে, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, ‘মাছের পেটে অবস্থানকালে জুন্নুন বা মাছওয়ালা তথা ইউনুস (আ.) যে দোয়া পড়েছেন, এটি যে কোনো মুসলিম যে কোনো সময় পড়বে, আল্লাহ অবশ্যই তার দোয়া কবুল করবেন।’ (তিরমিজি : ৩৫০৫; মুসনাদ আহমাদ : ১৪৬২)।

আরো পড়ুন: মানসিক স্বাস্থ্য ভালো রাখার কিছু উপায়

দোয়াটি হলো-

لاَ إِلَهَ إِلاَّ أَنْتَ سُبْحَانَكَ إِنِّي كُنْتُ مِنَ الظَّالِمِينَ

উচ্চারণ : লা ইলাহা ইল্লা আনতা ছুবহানাকা ইন্নি কুনতু মিনায যোলিমীন।

অর্থ : ‘আপনি ছাড়া কোনো সত্য ইলাহ নেই, আপনি সপ্রশংস মহান, নিশ্চয় আমি জুলুমকারীদের অন্তর্ভুক্ত।’

অন্য দোয়াটি –

আবদুল্লাহ ইবন আব্বাস (রা.) থেকে সহিহ বুখারি ও মুসলিমে বর্ণিত হয়েছে, তিনি বলেন, নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বিপদের সময় বলতেন :

لاَ إِلَهَ إِلَّا اللَّهُ العَلِيمُ الحَلِيمُ، لاَ إِلَهَ إِلَّا اللَّهُ رَبُّ العَرْشِ العَظِيمِ، لاَ إِلَهَ إِلَّا اللَّهُ رَبُّ السَّمَوَاتِ وَرَبُّ الأَرْضِ رَبُّ العَرْشِ الكَرِيمِ

উচ্চারণ : লা ইলাহা ইল্লাল্লাহুল আলীমুল হালীম, লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু রাব্বুল আরশিল আযীম, লা ইলাহা ইল্লাল্লাহু রাব্বুস সামাওয়াতি ওয়ারাব্বুল আরদি ওয়ারাব্বুল আরশিল কারীম।

অর্থ : আল্লাহ ছাড়া কোনো সত্য মাবুদ নেই; যিনি সর্বজ্ঞ, সহিষ্ণু। আল্লাহ ছাড়া কোনো সত্য উপাস্য নেই; যিনি মহান আরশের প্রতিপালক। আল্লাহ ছাড়া কোনো সত্য আরাধ্য নেই; যিনি আকাশমণ্ডলি, পৃথিবী ও সম্মানিত ‘আরশের অধিপতি। (সহিহ বুখারি : ৭৪২৬)।

অন্যমনস্কতা দূর করার উপায়

বাচ্চাদের  অ্যাটেনশ্‌ন ডেফিসিট হাইপার অ্যাকটিভ ডিসওর্ডার থাকলে মেডিসিনাল ট্রিটমেন্টের সঙ্গে বিহেভিয়ার থেরাপি ও পেরেন্টিং কাইন্সেলিং করতে হবে।

যে কোনো কাজ-ই বাচ্চাদের ধৈর্য সহকারে করতে শেখাতে হবে।

বাচ্চাদের যেহেতু  হাইপার অ্যাকটিভিটি থাকে তাই এদের এনার্জি লসের জন্য খেলাধুলা অথবা এক্সারসাইজ করাতে।

মনসংযোগ বাড়াতে বাচ্চাদের বোর্ড গেম-এ খেলতে দিতে হবে।

বড়দের ক্ষেত্রে সাধারণত মেডিসিনাল ট্রিটমেন্টের সঙ্গে সাইকো থেরাপি করতে হবে।

প্রিয় পাঠক, আপনিও সম্ভব ডটকমের অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল বিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, খাবার, বিস্ময়কর পৃথিবী, সচেতনমূলক লেখা, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ ইনবক্স করুন- আমাদের ফেসবুকে  SOMVOB.COM লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।