বিশ্বের সেরা ২০টি স্মার্টফোন

গতবছর স্মার্টফোনের রাজ্যে বেজেললেস ডিসপ্লে কিংবা নচ এর মত নতুন কিছু ডিজাইন ট্রেন্ড এসেছিল। সেই সাথে ডুয়াল/ট্রিপল ক্যামেরায় বোকেহ ইফেক্ট অথবা ব্যাকগ্রাউন্ড ব্লার করার ফিচারটিও খুব হাইপ তৈরি করেছিল। ২০১৯ সালে এসে এই ফিচারগুলোরই একটু উন্নত রূপ দেখা যাচ্ছে বিশ্বের সেরা ২০টি স্মার্টফোন গুলোতে।

তো চলুন এক নজরে ২০১৯ সালে (এখন পর্যন্ত বাজারে আসা) বিশ্বের সেরা স্মার্টফোনগুলো দেখে নিই।

শাওমি রেডমি কে২০ প্রো

বিশ্বের সেরা স্মার্টফোন তালিকার ১০ নম্বরে আছে শাওমি রেডমি কে২০ প্রো।  শাওমির বাজেট লাইনআপ, রেডমির সবচেয়ে বেশি দামের ফোন হল রেডমি কে২০ প্রো। ৬.৩৯ ইঞ্চির সুপার এমোলেড ডিসপ্লেযুক্ত এই ফোনে রয়েছে স্ন্যাপড্রাগন ৮৫৫ চিপসেট। রেডমি কে২০ প্রো এর পিছনে থাকছে ৩ টি ক্যামেরা — ৪৮ মেগাপিক্সেলের প্রাইমারি, ৮ মেগাপিক্সেলের আল্ট্রাওয়াইড এবং ১৩ মেগাপিক্সেলের টেলিফটো ক্যামেরা।  সাথে ফোনের সামনে থাকছে আকর্ষণীয় ২০ মেগাপিক্সেলের পপ-আপ সেল্ফি ক্যামেরা। অফিসিয়ালি রেডমি কে২০ প্রো এর ৮/২৫৬ ভার্সনের দাম ধরা হয়েছে ৪৯,৯৯৯ টাকা।

সনি এক্সপেরিয়া ১

এটি সনির নতুন ফ্ল্যাগশিপ লাইনআপ এর প্রথম ফোন। বিশ্বের সেরা স্মার্টফোন তালিকায় এটিও স্থান পাবে। এটি একটি মিডিয়া ডিভাইস বলা যায়। ৬.৫ ইঞ্চির সিনেমাটিক রেশিও এর ফোরকে ওলেড ডিসপ্লে আছে ফোনটিতে। স্নাপড্রাগন ৮৫৫ চিপসেটের সাথে এতে থাকছে ৬ জিবি র‍্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজ। এর পিছনে ৩ টি ১২ মেগাপিক্সেলের সেন্সর আছে যেগুলোর ধরন যথাক্রমে নরমাল, ওয়াইড এঙ্গেল ও টেলিফটো। ৩৩০০ মিলিএম্প ব্যাটারি থাকা ফোনটির দাম শুরু ৮০০ ইউএস ডলার থেকে।

আসুস আরওজি ফোন ২

বিশ্বের সেরা স্মার্টফোন তালিকার ৮ নম্বরে আছে আসুস আরওজি ফোন ২। রিপাব্লিক অফ গেমার্স, সংক্ষেপে আরওজি আসুস এর গেমিং নির্ভর ফ্ল্যাগশিপ লাইনআপ। ৬০০০ মিলিএম্প এর বিশাল ব্যাটারি যুক্ত এই ফোনে থাকছে কোয়ালকম এর লেটেস্ট চিপসেট স্ন্যাপড্রাগন ৮৫৫ প্লাস। ৬.৫৯ ইঞ্চির আরওজি ফোন ২ এর ব্যাকে আছে ৪৮ ও ১৩ মেগাপিক্সেলের দুইটি ক্যামেরা। সাথে ফ্রন্টে থাকছে ২৪ মেগাপিক্সেলের সেল্ফি ক্যামেরা। ৮জিবি র‍্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজ থাকছে ফোনটিতে। লাখ টাকা দামের এই ফোন মোবাইল গেমারদের জন্য আদর্শ সমাধান।

আইফোন ১১

এই বছরই অ্যাপল তাদের সবচেয়ে শক্তিশালী এ১৩ বায়োনিক চিপ দ্বারা চালিত ফোন আইফোন ১১ বাজারে ছাড়ে। বিশ্বের সেরা স্মার্টফোন তালিকা এর স্থান অবধারিত। দেখতে অনেকটা আইফোন ১০ এর হুবহু কপি মনে হলেও আইফোন ১১ তে থাকছে ১২ মেগাপিক্সেলের বাড়তি আল্ট্রাওয়াইড ক্যামেরা। ৩১১০ মিলিএম্প এর ব্যাটারিতে চলবে ফোনটি। আইফোন ১১ এর দাম শুরু ৬৯৯ ডলার থেকে।

ওয়ানপ্লাস ৭টি প্রো

৪০৮৫ মিলিএম্প ব্যাটারি দ্বারা চালিত ফোন ওয়ানপ্লাস ৭টি প্রো তে থাকছে স্ন্যাপড্রাগন ৮৫৫ প্লাস চিপসেট। ১৬ মেগাপিক্সেলের পপ-আপ ফ্রন্ট ক্যামেরা ফোনটিতে যুক্ত করেছে আলদা সৌন্দর্য। ৮ এবং ১২ – দুইটি র‍্যাম ভ্যারিয়েন্টে পাওয়া যাবে ফোনটি। এছাড়াও রয়েছে ৩০ ওয়াটের সুপার ফাস্ট চার্জার। ফোনটির দাম শুরু ৬৫০ ডলার থেকে।

স্যামসাং গ্যালাক্সি এস ১০ প্লাস

বিশ্বের সেরা স্মার্টফোন তালিকায় স্যামসাং গ্যালাক্সি এস সিরিজ থাকা অত্যাবশ্যক! স্যামসাং এর এই লেটেস্ট ফ্ল্যাগশিপগুলো দেখতে খুবই চমৎকার। গ্যালাক্সি এস ১০+ এ থাকছে ১২, ১২ ও ১৬ মেগাপিক্সেলের ট্রিপল ক্যামেরা আর সাথে ১০ মেগাপিক্সেলের একটি সেলফি ক্যামেরাও আছে ফোনটিতে। এর ডিসপ্লেতে আল্ট্রাসনিক ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সরও আছে।

ফোনটির ব্যাটারি ক্যাপাসিটি ৪১০০ মিলিএম্প। গ্যালাক্সি এস১০+ এ থাকছে ৬.৪ ইঞ্চির কিউএইচডি প্লাস ডিসপ্লে, ডুয়াল সেলফি ক্যামেরা, ১২ জিবি র‍্যাম আর ১ টেরাবাইট স্টোরেজ। এস ১০+ এর দাম শুরু ৯৯৯ ডলার থেকে।

হুয়াওয়ে পি৩০ প্রো

Huawei P30 Pro

২০১৯ এর সেরা ফোন এটি এতে কারো কোন দ্বিমত থাকার কথা না। বিশেষ করে এর ক্যামেরা বিবেচনায়। ৬.৪৭ ইঞ্চি ডিসপ্লের ফোনটি এসেছে বাজারের অন্যতম দ্রুতগতির প্রসেসর হুয়াওয়ের নিজস্ব কিরিন ৭ ন্যানোমিটার  ৯৮০ চিপসেট  যেখানে ব্যবহার করা হয়েছে ডুয়াল নিউরাল প্রসেসিং ইউনিট।

আইপি ৬৮ রেটিং সম্পন্ন ফ্ল্যাগশিপ ফোন এটি। সাব্জেট কালার ঠিক রেখে ব্যাকগ্রাউন্ড কালার কন্ট্রোল করার মত টেকনিক ব্যবহার করা হয়েছে এতে। ৪০ ওয়াটের সুপারচার্জার ব্যবহার করা হয়েছে এতে সাথে রিভার্স ওয়্যারলেস চার্জিং সুবিধা রেখেছে।

 ৮ জিবি র‍্যাম, ৪২০০ মিলিএম্প ব্যাটারি আর ৫১২ জিবি স্টোরেজ নেহাত সাধারণ মনে হলেও এর ক্যামেরাতেই থাকছে চমক। ৪০ মেগাপিক্সেল মেইন সেন্সর, ২০ মেগাপিক্সেল আলট্রাওয়াইড, ৮ মেগাপিক্সেল টেলিফটো আর সাথে ত্রিমাত্রিক একটি ডেপথ সেন্সরও আছে। এর টেলিফটো ক্যামেরাটি ৫ গুন পর্যন্ত লসলেস অপটিক্যাল জুম এবং ৫০ গুন পর্যন্ত ডিজিটাল জুম করতে পারে। সাথে আছে অসাধারণ লো লাইট ছবি তোলার ক্ষমতা। ফোনটি পাওয়া যাচ্ছে ৮৮০ ইউরো থেকে। বিশ্বের সেরা ১০ স্মার্টফোন তালিকার সবার শীর্ষে তাই হুয়াওয়ে পি৩০ প্রো। পি৩০ প্রো স্মার্টফোনে কোয়াড ক্যামেরা সেটআপ রাখা হয়েছে। এতে ১/১.৭ হুয়াওয়ে স্পেকট্রাম সেন্সরযুক্ত ৪০ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি ক্যামেরা ও এফ/১.৬ লেন্স, এফ/২.২ অ্যাপারচারের সেকেন্ডারি ক্যামেরা ২০ মেগাপিক্সেল আলট্রা ওয়াইড অ্যাঙ্গেল ও অ্যাপারচার এফ/ ২.৪ টেলিফটো ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরার পাশাপাশি টাইম অব ফ্লাইট (টিওএফ) ক্যামেরা যুক্ত রয়েছে। এতে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাযুক্ত এইচডিআর প্লাস প্রযুক্তি ব্যবহৃত হয়েছে।

স্যামসাং গ্যালাক্সি এস১০ ও এস১০+

samsung galaxy S10/S10+

বিশ্বের সেরা ১০ স্মার্টফোন তালিকায় স্যামসাং গ্যালাক্সি এস সিরিজ থাকা অত্যাবশ্যক! স্যামসাং এর এই লেটেস্ট ফ্ল্যাগশিপগুলো দেখতে খুবই চমৎকার। বিশেষ করে এদের ডিসপ্লেতে থাকা লেজার কাট ক্যামেরা হোল গুলো। স্ন্যাপড্রাগন ৮৫৫, ৮ জিবি র‍্যাম, ৫১২ জিবি স্টোরেজ আর সাথে থাকছে ৬.১ ইঞ্চির ডায়নামিক এমোলেড ডিসপ্লে। ১২, ১২ ও ১৬ মেগাপিক্সেলের ট্রিপল ক্যামেরা আর সাথে ১০ মেগাপিক্সেলের একটি সেলফি ক্যামেরাও আছে ফোনটিতে। এর ডিসপ্লেতে আল্ট্রাসনিক ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সরও আছে।

ফোনটির ব্যাটারি ক্যাপাসিটি ৩৪০০ মিলিএম্প এর। অন্যদিকে এটারই একটু বড় ভার্সন এস১০+ এ থাকছে ৬.৪ ইঞ্চির কিউএইচডি প্লাস ডিসপ্লে, ডুয়াল সেলফই ক্যামেরা, ১২ জিবি র‍্যাম আর ১ টেরাবাইট স্টোরেজ। এর ব্যাটারিটিও অপেক্ষাকৃত বড় ৪১০০ মিলিএম্প এর। ফোনগুলোর দাম শুরু ৯৯৯ ডলার থেকে

বিশ্বের সেরা ২০টি মোবাইল ফোন এর তালিকায় আছে শাওমির লেটেস্ট ফ্ল্যাগশিপ মি ৯।

ফোনটিতে সিস্টেম অন চিপ হিসেবে আছে কোয়ালকম এর লেটেস্ট ফ্ল্যাগশিপ স্ন্যাপড্রাগন ৮৫৫। ৮ জিবি র‍্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্ট এ পাওয়া যাচ্ছে ফোনটি। ইন ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর এর সাথে ৬.৪ ইঞ্চির এমোলেড প্যানেল পাচ্ছেন ফোনটিতে। থাকছে ছোট্ট একটি ওয়াটারড্রপ নচ।

এর পিছনে যথাক্রমে ৪৮, ১৬ ও ১২ মেগাপিক্সেলের তিনটি ক্যামেরা ও সেলফির জন্য সামনে একটি ২০ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা রয়েছে। এর ৩৩০০ মিলিএম্প এর ব্যাটারিটি ২০ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সমর্থন করে। মি ৯ ট্রান্সপারেন্ট এডিশন নামে এটার আরেকটা ভার্সন আছে যার ব্যাক প্যানেল স্বচ্ছ কাঁচে তৈরী। এর দাম শুরু ৩০০০ চাইনিজ ইউয়ান থেকে।

সনি এক্সপেরিয়া ১

Sony xperia -1

এটি সনির নতুন ফ্ল্যাগশিপ লাইনআপ এর প্রথম ফোন। বিশ্বের সেরা ১০ স্মার্টফোন তালিকায় এটিও স্থান পাবে। এটি একটি মিডিয়া ডিভাইস বলা যায়। ৬.৫ ইঞ্চির সিনেমাটিক রেশিও এর ফোরকে ওলেড ডিসপ্লে আছে ফোনটিতে। স্নাপড্রাগন ৮৫৫ চিপসেটের সাথে এতে থাকছে ৬ জিবি র‍্যাম ও ১২৮ জিবি স্টোরেজ। এর পিছনে ৩ টি ১২ মেগাপিক্সেলের সেন্সর আছে যেগুলোর ধরন যথাক্রমে নরমাল, ওয়াইড এঙ্গেল ও টেলিফটো। ৩৩০০ মিলিএম্প ব্যাটারি থাকা ফোনটির দাম শুরু ৮০০ ইউএস ডলার থেকে।

আপকামিং ১+সেভেন প্রোঃ

OP7 pro

স্নাপড্রাগন ৮৫৫ চিপসেটের সাথে পপআপ মেকানিক্যাল ক্যামেরা নিয়ে আসছে ।

মোবাইল ফোনে উন্নত মানের ক্যামেরার জন্য ওয়ানপ্লাস স্মার্টফোনের সুনাম আছে। আর তারই ধারাবাহিকতায় আরও ভালো পারফরম্যান্স দিতে বাজারে আসছে ওয়ান প্লাস ৭ এবং ৭ প্রো মডেলের দুটি ফোন।

ওয়ান প্লাসের এটিই প্রথম ত্রিপল ক্যামেরা সেট আপের স্মার্টফোন। আর এতে সেলফি ক্যামেরায় থাকছে ট্রেন্ডি পপআপ সেলফি ক্যামেরা।

ডিসপ্লেঃ ওএলইডি ডিসপ্লের ওয়ান প্লাস পাওয়া যাবে স্টাইলিশ কার্ভ বডিতে। তবে ৬.৬৭ ইঞ্চির ৭প্রো-তে থাকছে সুপার অপটিক ডিসপ্লে। আর নচবিহীন লার্জ ভিউর ডিসপ্লেতে থাকছে ইন-ডিসপ্লে ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার।

হার্ডওয়্যারঃএর কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি করতে থাকছে সবচেয়ে দ্রুতগতির ৮৫৫ স্ন্যাপড্রাগন প্রসেসর। হেব্বি ইউজারদের চাপ সামলাতে ৮জিবি র‍্যামের সাথে থাকছে ২৫৬জিবির লার্জ ইন্টারনাল মেমোরি।

সফটওয়্যারঃঅ্যান্ড্রয়েড ভার্সন ৯পাই অপারেটিং সিস্টেমের সাথে যুক্ত থাকছে ওয়ানপ্লাসের নিজস্ব ৯.৫ অক্সিজেন অপারেটিং সিস্টেম।

ক্যামেরাঃ ওয়ানপ্লাস ৭ প্রো’র ত্রিপল ক্যামেরা সেট আপে থাকছে ৪৫ মেগাপিক্সেলের প্রাইমারি লেন্স, সাথে ১৬ এবং ৮ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা লেন্স। ফোনটিতে সনির’র আইএমএক্স ৫৮৬ প্রাইমারি সেন্সর ব্যবহার করা হবে।

গুগল পিক্সেল ৩ এক্সএল

Google pixel 3XL

খুব বেশী কিছু বলার নেই একে নিয়ে…সাধারন লুকের মধ্যে অসাধারন কিছু ধারণ করানোই বুঝি গুগলের কাজ।

গুগলের কম্পিউটেশনাল ফটোগ্রাফির বদৌলতে পিক্সেল ফোনগুলো গ্রাহকদের পছন্দের শীর্ষে থাকে। তাই বিশ্বের সেরা স্মার্টফোন তালিকায় এটি থাকবেই। গুগলের লেটেস্ট ফ্ল্যাগশিপ  পিক্সেল ৩ এক্সএল  বরাবরের মতোই চমৎকার ছবি তুলে।

আইফোন ১০এস ও ১০এস ম্যাক্স

Iphone Xs and Xs Max

আইফোন বাজারের অন্য ফ্ল্যাগশিপ ফোনের মত ফিচারে ঠাসা ফোন না বের করলেও  আগের বছর রিলিজ হওয়া আইফোন টেন থেকে প্রসেসর বাদে খুব বেশি কোনো উন্নয়ন না থাকা সত্বেও ফিচার ও চাকচিক্য দিয়ে অন্য যে কোনো স্মার্টফোন থেকে এটি এগিয়ে আছে। ফলে বিশ্বের সেরা ১০ স্মার্টফোন তালিকায় এটাকে রাখতেই হবে! ৫.৮ ইঞ্চি সাইজের অ্যাপলের বিখ্যাত সুপার রেটিনা ডিসপ্লে নিয়ে এসেছে আইফোন টেনএস, যা একই সাথে এইচডিআর ও থ্রিডি টাচ সাপোর্টেড। এর সবচেয়ে শক্তিশালী দিক হচ্ছে এ১২ বায়োনিক চিপ যা লেটেস্ট এন্ড্রয়েড ফ্ল্যাগশিপ গুলোতে ব্যবহৃত স্ন্যাপড্রাগন ৮৪৫ চিপ থেকে বেশি শক্তিশালী।

৪ জিবি র‍্যাম ও ৫১২ জিবি পর্যন্ত স্টোরেজ অপশন আছে আইফোন টেনএস এ। সাথে প্রথমবারের মত কোন অ্যাপল ফোনে ডুয়াল সিম ক্যাপাবিলিটিও নিয়ে আসছে এটি। স্টেইনলেস স্টিল ফ্রেম ও গ্লাস-ফিনিশ বডির পিছনের দিকে রয়েছে ডুয়াল ক্যামেরা সেটআপ। পাশাপাশি এটি আইপি ৬৮ রেটেড পানিরোধী বৈশিষ্ট্য সম্পন্ন। রয়েছে আগের আইফোনগুলো থেকে অধিক ব্যাটারি ক্যাপাসিটি। সাথে ওয়্যারলেস চার্জিং তো আছেই। অন্যদিকে একই স্পেসিফিকেশন নিয়ে আসা টেনএস ম্যাক্স এর ব্যাটারি ক্যাপাসিটি একটু বেশি আর ডিসপ্লে সাইজ বাড়িয়ে ৬.৫ ইঞ্চি করা হয়েছে। সাথে ফেস আইডি রিকগনিশন তো আছেই।

হুয়াওয়ে মেইট ৩০ প্রো

ক্যামেরা কেন্দ্রিক ফোন হুয়াওয়ে মেইট ৩০ প্রো তে থাকছে ৪০ মেগাপিক্সেলের দুইটি এবং ৮ মেগাপিক্সেলের একটি, মোট তিনটি ব্যাক ক্যামেরা। ফোনের ফ্রন্টে থাকছে ৩২ মেগাপিক্সেল সেল্ফি ক্যামেরা। ৪৫০০ মিলিএম্প ব্যাটারিযুক্ত ৬.৫৩ ইঞ্চি স্ক্রিনের এই ফোন চলবে হুয়াওয়ের নিজস্ব চিপসেট কিরিন ৯৯০ দ্বারা। বাংলাদেশে এর দাম লাখ টাকার মত হবে।

গুগল পিক্সেল ৪ এক্সএল

গুগলের পিক্সেল সিরিজের মূল আকর্ষণ এর হাই কোয়ালিটি ক্যামেরা। প্রাইমারি ১২ মেগাপিক্সেল ক্যামেরা সহ গুগল পিক্সেল ৪ এক্সএল  এর ব্যাকে এবার যুক্ত করা হয়েছে সেকেন্ডারি ১৬ মেগাপিক্সেল টেলিফটো ক্যামেরা। পিক্সেল ৪ এর ফ্রন্টে থাকছে ৮ মেগাপিক্সেলের সেল্ফি ক্যামেরা। ৩৭০০ মিলিএম্প এর এই ফোনে থাকছে স্ন্যাপড্রাগন ৮৫৫ চিপসেট। এছাড়াও গুগলের এন্ড্রয়েড এর লেটেস্ট ভার্সন ১০ এর  আউট-অফ-দ্যা-বক্স দেখা মিলবে পিক্সেল ৪ এক্সএল এ। বিশ্বের সেরা স্মার্টফোন তালিকায় এর অবস্থান অবধারিত।

স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট ১০ প্লাস

আগস্ট মাসে মুক্তি পাওয়া স্যামসাং এর নোট সিরিজের ফোন নোট ১০ প্লাস সবার নজর কাড়বে এর দৃষ্টিনন্দন ডিজাইনের জন্য। এর স্থান বিশ্বের সেরা স্মার্টফোন তালিকায় দ্বিতীয়। ৬.৮ ইঞ্চির বিশাল ডিসপ্লের এই ফোনে থাকছে স্যামসাং এর নিজস্ব এক্সিনোস ৯৮২৫ প্রসেসর। দুইটি ১২ মেগাপিক্সেলের আর একটি ১৬ মেগাপিক্সেলের, মোট তিনটি ক্যামেরা থাকছে নোট ১০ প্লাসের ব্যাকে।

এছাড়াও ফোনের ফ্রন্টে ছোট্ট একটি নচের মধ্যে থাকছে ১০ মেগাপিক্সেল সেল্ফি ক্যামেরা। স্যামসাং গ্যালাক্সি নোট ১০ প্লাস এর দাম ও বিস্তারিত ফিচার জানতে এখানে ক্লিক করুন

আইফোন ১১ প্রো ম্যাক্স

এই মুহূর্তে বিশ্বের সেরা স্মার্টফোন তালিকায় সবার শীর্ষে স্থান পাচ্ছে আইফোন ১১ প্রো ম্যাক্স। বাড়তি ১২ মেগাপিক্সেলের সুপার আল্ট্রাওয়াইড ক্যামেরা এবং ৩৯৬৯ মিলিএম্প এর অপেক্ষাকৃত বড় ব্যাটারি নিয়ে শীর্ষ ফোনের তালিকায় নিজেকে জয়ী করতে সক্ষম হয়েছ আইফোন ১১ প্রো ম্যাক্স। এতে পাচ্ছেন ৬.৫ ইঞ্চি স্ক্রিন, এ১৩ বায়োনিক চিপ সিপিইউ ও ডলবি এটমস অডিও।

আইফোন ১১ প্রো ম্যাক্স এর মূল ক্যামেরায় মোট তিনটি লেন্স রয়েছে (প্রতিটি ১২ মেগাপিক্সেল)। একটি হচ্ছে ওয়াইড লেন্স, আরেকটি টেলিফটো লেন্স এবং অন্যটি আলট্রা ওয়াইড লেন্স। এর মাধ্যমে আপনি চারগুণ অপটিক্যাল জুম করার সুবিধা পাবেন। এগুলো দিয়ে ৬০ ফ্রেম/সেকেন্ড রেটে ফোরকে ভিডিও রেকর্ড করা যাবে। আইফোন ১১ প্রো ম্যাক্স এর দাম শুরু ১০৯৯ ডলার থেকে।

আপনার কী মতামত? কমেন্টে জানান!

আপনি অনলাইনে যতগুলো স্মার্টফোন র‍্যাংকিং পাবেন, তা একটা আরেকটার সাথে মিলবেনা। এমনকি আপনার নিজের বিবেচনায়ও হয়ত আলাদা র‍্যাংকিং চলে আসবে। এই তালিকায় থাকা প্রতিটি ফোনই অসাধারণ। বিক্রেতাভেদে এদের দাম ভিন্ন হতে পারে।

2 Comments

    • ধন্যবাদ আপনাকে। সম্ভব ডটকমের সাথে থাকার জন্য আবারও ধন্যবাদ।

Leave A Reply

Please enter your comment!
Please enter your name here

সর্বশেষ

কম্পিউটার কিবোর্ড শর্টকাট; কি-বোর্ডের ২০০টি শর্টকাট ব্যবহার

আপনার কম্পিউটারে মাউসের ব্যবহার কমিয়ে কম্পিউটার কিবোর্ড শর্টকাট ব্যবহার বাড়ান৷ কারণ, মাউসে সমস্যা হলে আপনার কম্পিউটার অকেজো হয়ে পরে৷ কম্পিউটার কিবোর্ড...

১০০টি ফেসবুক টিপস! জানলে, আপনি হবেন সবার ছেয়ে স্মাট 😲

বিশ্বব্যাপী বহুল জনপ্রিয় ফেসবুক অ্যাপ দিয়ে করা যায় অনেক কিছুই। বর্তমানে আমাদের বেশির ভাগ সময়ই কাটে ফেসবুকে । হতে পারে সেটা কোন...

কেন লেবু খাবেন? লেবুর ১০০টি ও বেশি উপকারিতা 😱

আল্লাহ সৃষ্টি সব ফলের মধ্যে কিছু না কিছু উপকারীতা সৃষ্টি করে রেখেছেন। তার মধ্যে লেবু একটি অন্যতম। নিয়মিত লেবু পানি খেলে শরীরে...

আদার ৩০টি উপকারিতা ও ক্ষতিকর দিক সমূহ

বাঙালির রান্নার উপাদানগুলোর মধ্যে বিভিন্ন ধরনের মসলা রয়েছে। আদাও তেমনি একটি মসলা।আদার উপকারিতা ও নানা গুণের কারণে একে সুপারফুডও বলা হয়। 

বিশ্বের সেরা ২০টি রহস্যময় বিমান নিখোঁজ ও বিমান ‍দূর্ঘটনা

বিমান পথে চলাচল মানুষের গন্তব্যস্থলে পৌঁছাকে করেছে সহজ ও দ্রুততর।অনেকে আকাশ পথে ভ্রমণকে সবচেয়ে আনন্দময় ভ্রমণ হিসেবেও মনে করে থাকেন। তবে মাঝে...

Related Stories