১০০টি ফেসবুক টিপস! জানলে, আপনি হবেন সবার ছেয়ে স্মাট 😲

বিশ্বব্যাপী বহুল জনপ্রিয় ফেসবুক অ্যাপ দিয়ে করা যায় অনেক কিছুই। বর্তমানে আমাদের বেশির ভাগ সময়ই কাটে ফেসবুকে । হতে পারে সেটা কোন গুরুত্বপূর্ণ খবর পড়ে কিংবা অযথাই নিউজ ফিড স্ক্রল করে। আজকের আলোচনা ফেসবুক টিপস নিয়ে।

ফেসবুক টিপস আমরা সকলেই ফেসবুক ব্যবহার করি কিন্তু ফেসবুক এর এমন কিছু সেটিংস এবং সিকিউরিটি আছে যা আমাদের অনেকেরই অজানা! তাই আজকে ফেসবুক টিপস নিয় ১০১ প্রয়োজনীয় টিপস শেয়ার করা হয়েছে। আশা করি সময় নিয়ে পড়লে আপনি উপকৃত হবে।

এই ফেসবুক ব্যবহারের সুবিধা যেমন আছে তেমনি অসুবিধাও কম নয়। বিভিন্ন বিষয়ে ফেসবুক নিয়ে প্রায়ই আমরা বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়ি। কিন্তু সহজ কিছু ফেসবুক টিপস্ জানা থাকলে ফেসবুকের সমস্যাগুলো আমরা এড়িয়ে যেতে পারি সহজেই।

ফেসবুক টিপস্ ফেসবুক ব্যবহারকে করে আরো স্বাচ্ছন্দ্যময়। ফেসবুকে বলতে গেলে সব জায়গায়ই আছে নিরাপত্তার ব্যবস্থা।

কেবল না জানার কারণেই অনেকে এখানে হয়রানির শিকার হয়। জেনে এমন কিছু টিপস্ যা আপনার ফেসবুক ব্যবহারকে করে তুলবে নিরাপদ ও আনন্দময়।

« এক নজরে দেখুন এই প্রতিবেদনে কি কি রয়েছে »

ফেসবুক মজাদার টিপস

ফেসবুকটা চমৎকারভাবে ব্যবহার করার জন্য অগণিত টিপস্ আছে। এর মধ্য থেকে যেগুলো আমাদের সচরাচর কাজে আসে এবং প্রত্যেকের জানা প্রয়োজন এমন ২৫টি ফেসবুক টিপস্ এখানে দেওয়া হলো।

নিউজ ফিডে সেভ করুন

facebook news feed

নিউজ ফিডে এমন কিছু পেলেন যেটার প্রতি আপনি আগ্রহী। অথবা এমনও হতে পারে কনটেন্টটি পরবর্তীতে আপনার কাজে লাগবে। কিন্তু এই মুহূর্তে পড়া বা দেখার সময় নেই। সুতরাং, সেভ করে নিন পরবর্তী সময়ের জন্য।

যেকোন পোস্ট সেভ করে রাখতে চাইলে আপনার ফেসবুক অ্যাপ থেকে সেই পোস্টের ডান পাশের তীর চিহ্নে ক্লিক করুন। তারপর ক্লিক করুন ‘Save post’ অপশনে। পরবর্তীতে খুঁজে পেতে চাইলে ‘Saved’ আইটেমে যান। সেভ করার বিষয়টি ‘More’ অপশনেও থাকে।

ফেসবুক Secure লগিন অ্যালার্ট সেট করে রাখুন

ফেসবুক লগিন এলার্ট

যদি কেউ অন্যকোন ডিভাইস থেকে আপনার অ্যাকাউন্টে লগিন করে, তাহলে ফেসবুক যেন আপনাকে যত দ্রুত সম্ভব সতর্ক করতে পারে সেজন্য লগিন অ্যালার্ট সেট করে রাখতে হবে। এটি একটি সম্ভাব্য হ্যাকিং থেকে দ্রুত রক্ষার জন্য গুরুত্বপূর্ণ হতে পারে।

অ্যালার্ট সেট করতে Settings > Security > Login Alert এ নেভিগেট করুন।

বিরক্তিকর গেমের ইনভাইটেশন নটিফিকেশন বন্ধ করুন

ফেসবুক টিপস

ক্যান্ডি ক্রাশের মতো প্রচুর গেম আছে বারবার বিভিন্ন জনের কাছ থেকে যেগুলোর ইনভাইটেশন পেতে হয়। 

রিকোয়েস্ট বন্ধ করতে More→ Setting→ Account Setting→ Notification→ Mobile→ uncheck Application Invite যান আর বন্ধ করে ফেসবুক গেমের ইনভাইটেশন।

ফেসবুক প্রোফাইল পিকচারটিকে অ্যানিমেটেড GIF করুন

animated gif

আপনার ফেসবুক অ্যাপ থেকে প্রোফাইল পিকচার সিলেক্ট করে ক্লিক করুন ‘Take a New Profile Video’.

তারপর আপনার একটি শর্ট ভিডিও সেখানে আপলোড করতে পারেন। GIF Format দেখতে এই সাইটটি গুরে আসতে পারেন। giphy.com

নিউজ ফিডে অটো-প্লেয়িং ভিডিও বন্ধ করে দিন

ফেসবুক টিপস ট্রিকস

নিউজ ফিড স্ক্রল করার সময় বিভিন্ন ভিডিও অটো-প্লে হতে দেখা যায়। বিভিন্ন পরিস্থিতিতে যেগুলোর সাউন্ড বিব্রতকর পরিস্থিতিতে ফেলে।

আরো পড়ুন: সব উপদেশ শুধুমাত্র স্ত্রীর প্রতি কেনো?

আপনি চাইলেই ফেসবুক অ্যাপের More অপশনে গিয়ে Videos and Photos এ শুধু Wi-Fi কানেকশনে চলবে বা Never ক্লিক করে সবসময়ের জন্য অটো-প্লে বন্ধ করে দিতে পারেন।

আগের বছরগুলোতে ঠিক আজকের দিনে আপনার ফেসবুক অ্যাক্টিভিটি দেখুন

on this day

ফেসবুকের On This Day ফিচারে নির্দিষ্ট দিনে আগের বছরে আপনার ফেসবুক অ্যাক্টিভিটি চেক করতে পারেন।

শুধুমাত্র আপনিই আপনার আগের অ্যাক্টিভিটি দেখতে পারবেন। Facebook.com/onthisday লিংক থেকে আপনি এটা দেখতে পারেন। কোন নির্দিষ্ট ব্যক্তির সাথের কোন মেমরি দেখতে না চাইলে ফেসবুক আপনাকে সেই সুবিধাও দিবে।

আপনার অ্যাক্টিভিটি লগ থেকে যা লাইক, শেয়ার বা কমেন্ট করেছেন তা দেখতে পারেন

ফেসবুক একটিভ লগ

অ্যাক্টিভিটি লগে আপনার প্রত্যেক দিনের সব কার্যক্রম রেকর্ড করা থাকে। ফেসবুকে আপনি কী করলেন সবকিছু চাইলে চেক করতে পারেন Activity Log থেকে। এটা শুধু আপনিই দেখতে পারবেন।

কোন ব্যক্তি বা পেজের কোন আপডেট মিস করতে না চাইলে সেগুলো সিলেক্ট করে নিন

কোন পেজ বা নির্দিষ্ট ব্যক্তির সব পোস্ট দেখতে চাইলে সেটা See First দিয়ে রাখতে পারেন।

প্রথমে More→ Setting→ News Feed Performance তারপরই নির্বাচিত ব্যক্তি বা পেজের পোস্টের পাশে ছোট নীল তারকা চিহ্নিত অংশ সহ নিউজ ফিডে প্রথমে তাদের অবস্থান থাকবে।

ফেসবুকে ফ্রেন্ড এবং ফলোয়ারের মধ্যে পার্থক্য রাখুন

ফেসবুকে ফ্রেন্ড এবং ফলোয়ারের মধ্যে পার্থক্য রাখুন

দুইভাবে ফেসবুকে কারো সাথে যোগাযোগ রাখা যায় : বন্ধু হয়ে বা ফলো করে।

বন্ধুরা আপনার সব পোস্ট দেখতে পারবে। কিন্তু ফলোয়াররা সেই পোস্টগুলোই দেখবে যেগুলোর প্রাইভেসি পাবলিক করা। Follower সেকশনে গিয়ে কারা আপনাকে ফলো করতে পারবে সেটা ইচ্ছেমতো ঠিক করে নিতে পারেন।

আপনার প্রোফাইলটি অন্যরা কী রকম দেখে সেটা দেখে নিন

অন্যরা আপনার প্রোফাইলে এলে কেমন দেখে সেটা চেক করতে হলে নিজের প্রোফাইলে যান। তারপর সেখানে View as অপশন ক্লিক করুন। তারপর দেখুন অন্যদের কাছে আপনার প্রোফাইলি কেমন দেখায়।

নির্দিষ্ট কাউকে আপনার করা পোস্টটি দেখতে দিতে না চাইলে তাকে বাদ দিয়ে পোস্ট করুন

নির্দিষ্ট কাউকে আপনার করা পোস্টটি দেখতে দিতে না চাইলে তাকে বাদ দিয়ে পোস্ট করুন

ফেসবুক টিপসের মধ্যে এটা অত্যন্ত জরুরি। একটা পোস্ট করতে গেলে তিনটা অপশনে করা যায় :

  • Friends
  • Friends of Friends
  • & Everyone

পোস্টের ওপরের ডানপাশের কোণার তীর চিহ্ন থেকে যেকোন প্রাইভেসি নির্বাচন করা যায়। Edit privacy তে গেলেই অপশনগুলো পাওয়া যাবে।

যদি নির্দিষ্ট কিছু ব্যক্তিকে বাদ দিয়ে পোস্ট করতে চান তবে মোবাইল অ্যাপের ক্ষেত্রে Friends except এ গিয়ে যাদেরকে বাদ দিতে চান তাদেরকে সিলেক্ট করুন। ডেক্সটপের ক্ষেত্রে ক্লিক করুন Custom।

আপনি ছাড়া অন্য সবার কাছ থেকে আপনার ফ্রেন্ড লিস্ট হাইড করে রাখুন

আপনি ছাড়া অন্য সবার কাছ থেকে আপনার ফ্রেন্ড লিস্ট হাইড করে রাখুন

আপনার ফ্রেন্ড লিস্টে কতজন আছে বা কারা আছে তা কাউকে দেখাতে না চাইলে লিস্টটি হাইড করে ফেলুন।

ডেক্সটপ থেকে ফ্রেন্ড লিস্টে Manage এ ক্লিক করুন। তারপর Edit Privacy. তারপর আপনার ফ্রেন্ড লিস্ট, ফলোয়ার বা আপনি যাদের ফলো করেন এসব কারা দেখতে পারবে তা নির্ধারণ করে দিতে পারবেন।

রিলেশনশিপ স্ট্যাটাস পরিবর্তণ বন্ধুদের কাছ থেকে হাইড করুন

রিলেশনশিপ স্ট্যাটাস পরিবর্তণ বন্ধুদের কাছ থেকে হাইড করুন

হঠাৎ রিলেশনশিপ স্ট্যাটাস পরিবর্তন করলেন আর সেটা আপনার বন্ধুদের নিউজ ফিডে শো করল। এটা মাঝে মাঝে বিব্রতকরও হয়।

তাই চাইলেই আপনার রিলেশনশিপ স্ট্যাটাস পরিবর্তন আপনি ছাড়া আর কেউ দেখতে পারবে না এমনটা করতে পারেন। Edit profile এ গিয়ে Family & Relationship অপশনে ক্লিক করুন। তারপর প্রাইভেসি রাখুন Only me.

নির্দিষ্ট কোন ফটো অ্যালবাম বা ইভেন্ট টাইমলাইন থেকে হাইড করে রাখুন

নির্দিষ্ট কোন ফটো অ্যালবাম বা ইভেন্ট টাইমলাইন থেকে হাইড করে রাখুন

কোন ফটো অ্যালবাম যেটা আপনি চান না যে অন্য কেউ দেখুক। আবার ডিলেটও করতে চান না। সেক্ষেত্রে সেগুলো কেবল আপনি দেখবেন এমন প্রাইভেসি দিয়ে রাখুন। আপনার লাইফ ইভেন্ট, রিলেশন, নতুন চাকরি এসবও আপনি হাইড করে রাখতে পারেন।

ফটো অ্যালবাম বা ইভেন্টের পাশের আইকনে চোখ রাখুন। দুটো ছোট মানুষের আইকন মানে শুধু বন্ধুরা দেখবে, গ্লোভ মানে এটা পাবলিক আর প্যাডলক আইকন বোঝায় শুধু আপনিই এটা দেখতে পারবেন।

বিরক্তিকর লোকজনকে ব্লক করে দিন

বিরক্তিকর লোকজনকে ব্লক করে দিন

ফেসবুক টিপস্ এর মধ্যে এটা অন্যতম। ভাবা যায় না এই অপশনটা না থাকলে কী হতো!

আপনাকে মেসেজ দিয়ে বা পোস্টে আপত্তিকর কোন কমেন্ট করে বিরক্ত করলে সেই ব্যক্তিকে আপনি ব্লক করে দিতে পারবেন।

অর্থাৎ ওই ব্যক্তি আপনার প্রোফাইল বা আপনাকে আর কখনোই খুঁজে পাবে না, আপনার সাথে যোগাযোগ করতে পারবে না।

আরো পড়ুন: যৌন বিশেষজ্ঞ ডাক্তারদের গুরুত্বপূর্ণ ২০০টি প্রশ্ন উত্তর ✅

যাকে ব্লক করতে চান তার প্রোফাইলে গিয়ে ওপরের ডান পাশের কোণার তিনটা ডট চিহ্নে ক্লিক করুন। তারপর সিলেক্ট করুন Block.

যত জায়গায় আপনি এ পর্যন্ত লগ ইন করেছেন দেখুন এবং লগ আউট করুন

যত জায়গায় আপনি এ পর্যন্ত লগ ইন করেছেন দেখুন এবং লগ আউট করুন

আপনার ফেসবুক অ্যাপ থেকে সিলেক্ট করুন More→ Settings→ Account Setting→ Security→ Active Session. অ্যাকটিভ সেসনে দেখতে পাবেন লগ ইন ডিভাইসগুলো। “X” ক্লিক করে সব ডিভাইস থেকে লগ আউট করে নিন।

কেউ আপনার অ্যাকাউন্টে ঢুকতে চাইলে অ্যালার্ট সেটিং করে রাখুন

ফেসবুকে লগইন অ্যালার্ট এবং লগইন অ্যাপ্রুভাল অন করে রাখতে পারেন সিকিউরিটি সেটিংয়ে গিয়ে।

আপনার অ্যাকাউন্টে কেউ ঢুকার চেষ্টা করলে আপনার ইমেইল বা ফেসবুক নটিফিকেশনের মাধ্যমে সেটা জানতে পারবেন।

লগইন অ্যাপ্রুভাল মানে হচ্ছে অন্য কোন ডিভাইস থেকে অ্যাকাউন্টে লগইন করতে চাইলে আপনার ফোনে একটি কোড আসবে যেটা ছাড়া লগইন সম্ভব না।

জন্মদিনের নটিফিকেশন বন্ধ করে দিন

জন্মদিনের নটিফিকেশন বন্ধ করে দিন

প্রতিদিন অনেকের জন্মদিনের নটিফিকেশন জমা হওয়া যদি বিরক্তিকর মনে হয়, তবে Account Setting এ গিয়ে Birthday অপশন বন্ধ করে রাখুন।

পছন্দের মানুষের প্রত্যেকটি পোস্টের নটিফিকেশন অন করে নিন

পছন্দের মানুষের প্রত্যেকটি পোস্টের নটিফিকেশন অন করে নিন

নির্দিষ্ট কারো প্রত্যেকটি পোস্ট দেখতে চাইলে তার প্রোফাইলে গিয়ে Friends অপশনে ক্লিক করে Get Notification চালু করুন।

আপনার নাম কীভাবে উচ্চারণ করতে হবে তা জানিয়ে রাখুন

আপনার নাম কীভাবে উচ্চারণ করতে হবে তা জানিয়ে রাখুন

বন্ধুরা আপনার নামের উচ্চারণ ভুলভাবে করছে? এই ফেসবুক টিপস্ টি তাহলে আপনার জন্য।

ডেক্সটপে আপনার প্রোফাইল এডিটিংয়ে গিয়ে Details About You তে ক্লিক করে উচ্চারণ লিখুন। আপনি চাইলে প্রোফাইলে একটা ডাকনামও সেভ করে রাখতে পারেন।

যাদের পোস্ট দেখতে বিরক্তি আসে তাদেরকে আনফলো করে রাখুন

যাদের পোস্ট দেখতে বিরক্তি আসে তাদেরকে আনফলো করে রাখুন

যাদের পোস্ট আপনি দেখতে চান না। আবার আনফ্রেন্ডও করতে চান না। তাদেরকে আনফলো করে দিন। এই ফেসবুক টিপস্ টি আপনার সামাজিক সম্পর্ক ভালো রাখতে সহায়ক ভূমিকা রাখবে।

কারণ, আনফলো করলে তাদের পোস্ট আর আপনার নিউজ ফিডে শো করবে না। কিন্তু তারা আপনার ফ্রেন্ড লিস্টে ঠিকই থাকছে।

যাকে আনফলো করতে চান তার প্রোফাইলে গিয়ে Following অপশনে ক্লিক করুন। তারপর Unfollow.

ফেসবুকের ভিডিও ডাউনলোড করুন

ফেসবুকের ভিডিও ডাউনলোড করুন

 ফেসবুক এমন একটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম যার ফলে আমাদের সবাই যে কোন ধরনের সংবাদ বা মতামত এবং নিজেদের ইচ্ছা প্রকাশ ইত্যাদি এই ফেসবুক এ করে থাকি।

এই ফেসবুক এ নিজেদের মত করে স্ট্যাটাস, ছবি এবং ভিডিও এগুলো শেয়ার করে থাকি।আর যার এগুলো দিয়ে থাকে সেগুলো দেখি এবং মতামত প্রকাশ করে থাকি।

আমরা অনেক সময় ফেসবুকে ভিবিন্ন ধরনের ব্রাউজার ব্যবহার করে থাকি।আর এসব ব্রাউজার দিয়ে আপনি ফেসবুকের প্রয়োজনীয় ভিডিও ক্লিপটি সহজেই ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

অনেক সময় আমাদের অনেকগুলো ভিডিও ভালো লাগে বা গুরুত্বপুর্ণ কোন ভিডিও যা আপনার ডাউনলোড করা দরকার, তা সহজে করার জন্য গুগল ক্রোম বা মজিলা ফায়ারফক্স এর কিছু Extension রয়েছে যে গুলো এড করে সহজেই ফেসবুক ভিডিও ডাউনলোড করতে পারবেন।

ফেসবুকের ভিডিও ক্লিপটি ডাউনলোড করেতে আপনি আপনার ক্রোম ব্রাউজার ওপেন করুন।গুগল ক্রোমে একটি এক্সটেনশান ব্যবহার করে আপনি ভিডিও ক্লিপটি ডাউনলোড করে নিতে পারবেন।

  • প্রথম ধাপ:
    নিচের Add Extension লিংকে ক্লিক করলে এই উনডোটি অপেন হবে। তারপর
FBDown Video Downloader
  • ১ ক্লিকেই FBDown Video Downloader Extension এড করার পর দেখবেন ব্রাউজারের উপরে কোনায় বৃত্তকারে একটি আইকন শো করতেছে।
  • নিচের ছবিটি ভালো করে খেয়াল করুন।

 এর পর আপনি আপনার ফেসবুক এ চলে যান এবং আপনার কাঙ্ক্ষিত ভিডিও টিতে যান এবং ভিডিওতে ক্লিক করে দেখবেন extension এর Icon সেখানে ক্লিক করুন।

ক্লিক করার পর আপনার কাছে ডাউনলোডের ফরমেট আসবে এবং আপনি আপনর ইচ্ছা মত ডাউনলোড ফরমেট দিয়ে ভিডিও ক্লিপটি ডাউনলোড করতে পারবেন।

এবং extension এর Icon সেখানে ক্লিক করার পর অন্য একটি ওয়েব সাইটে রিডাইরেক্ট করে নিতে পারে ভিডিওতে ক্লিপটি ডাউনলোড করার জন্য ও খান থেকেও আপনি Download Icon এ ক্লিক করে ফেসবুকের ভিডিওতে ক্লিপটি ডাউনলোড করতে পারবেন।

ফেসবুকে Poke এর কাজ কি এবং এর মানে কি

ফেসবুকে Poke এর কাজ কি এবং এর মানে কি

আমরা যারা ফেসবুক ব্যবহার করি অনেকেই জানেন না ফেসবুকে Poke এর কাজ কি এবং এর ফিচারটা কি।ফেসবুক অ্যাকাউন্ট কম বেশি এই poke ব্যবহার করি।মূলত এই Poke ব্যবহার করে কারও দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয।

কিন্তু এই Poke ফেসবুক এর একটি গুরুত্বপূর্ন ভূমিকা পাল করে।যেমন আপনি যদি কাওকে এই Poke দেন তাহলে দেখা য়ায সে ও আপনাকে poke back করে।

মনে করেন কেউ একজন আপনার ফ্রেন্ড লিস্ট নাই এবং তার কোন ইনফরমেশন ফেসবুকে সে হাইড করে রেখেছেন আপনি তা দেখতে পারতেছেন না। তাহলে আপনি এই Poke ব্যবহার করে তার সব ধরনের ইনফরমেশন দেখতে পারবেন।

যেমন আপনি সেই বন্ধুটিকে Poke দিলেন এবং সে আপনার এই poke back করল তাহলে আপনি তার ফেসবুক প্রোফাইল এবং পেজ ৩ দিন এর জন্য দেখতে পারবেন।

কোন ধরনের পোস্ট আপনার পছন্দ না তা ফেসবুককে জানান

কোন ধরনের পোস্ট আপনার পছন্দ না তা ফেসবুককে জানান

আপনার নিউজ ফিডে বিভিন্ন ধরনের পোস্ট আসে। যে ধরনের পোস্টে আপনি লাইক কমেন্ট বেশি করেন সাধারণত সেগুলোই বেশি আসে।

তবে কোন পোস্ট যদি আপনার পছন্দ না হয় তবে পোস্টের ডান পাশের তীর চিহ্নিত অংশে ক্লিক করে প্রেস করুন I don’t like this post. এতে এই ধরনের পোস্ট ফেসবুক আর আপনাকে রিকমেন্ড করবে না।

ফেসবুকে ডিলেট হওয়া সব ফিরিয়ে আনার টিপস

ফেসবুকে ডিলেট হওয়া সব ফিরিয়ে আনার টিপস

অধিকাংশ সময় ফেসবুক ব্যাবহারকারীই প্রয়োজন ছাড়া অনেক কিছু যেমন, মেসেজ, ছবি, ভিডিও ইত্যাদি পোস্ট করে থাকি এবং তা ডিলিট ও করে ফেলি।

আবার অনেক সময় দেখা যায় এই ডিলিট করা মেসেজ, ছবি, ভিডিও ইত্যাদি আমদের প্রয়োজন হয় কিন্তু ফেসবুক এইটা কিভাবে ফিরিয়ে আনা যায় আমরা জানি না।

যেহেতু ফেসবুকে Undo অপশন নেই তাই ডিলিট হয়ে যাওয়া মেসেজ, ছবি, ভিডিও ইত্যাদি পাই না। কারন আপনি যখন ফেসবুকে কোন কিছু ডিলিট করে ফেলেন তখন সেগুলো আপানর ফেসবুকের Archive এ জমা হয়ে থাকে।

আর এই ডিলিট হয়ে যাওয়া সব কিছু আপনি সহজে ফ্রি ডউনলোড করে নিতে পারেন।

  • ধাপ-১
    প্রথমেই আপনি আপনার ফেসবুকের Settings অপশন এ গিয়ে সেখান থেকে General অপশনে ক্লিক করুন।
  • ধাপ-২
    General Settings অপশন হলে সেখানে নিচের দিকে দেখেন Download a copy of your Facebook data সেখানে থেকে ক্লিক করুন।
  • ধাপ-৩
    সেখনে Download Your Information পেজ দেখা যাবে সেখান থেকে Start My Archive এতে ক্লিক করার পর আপানকে হয়ত আইডি পাসওয়ার্ড দিতে বলে তা সঠিক করে দিন।
  • ধাপ-৪
    আইডি পাসওয়ার্ড সঠিক করে দেয়ে হলে Submit করুন।তারপর দেখবেন একটি Download Link আসবে সেখানে কিছু সময় লাগতে পারে এবং এই ডাটা গুলো আপনার ইমেইলে ও চলে যেতে পারে।
  • ধাপ-৫
    এবার আপনার Email চেক করে যে ইমেইল আসবে সেখান থেকে ডউনলোড লিংক এ ক্লিক করে Download Archive থেকে থেকে নিন।


    আপনি যে ফাইলটি Download করেবেন সেটি যদি Zip ফইল হয় তাহলে রাইট বাটন ক্লিক করে Extract All করুন মানে আনজিপ করে সেখান থেকে আপনার প্রয়োজনীয় মেসেজ, ভিডিও, ছবি, ইত্যাদি দেখতে পারবেন।

কোন পোস্টে কমেন্ট করার পর ওখান থেকে বারবার নটিফিকেশন আসা বন্ধ করুন

কোন পোস্টে কমেন্ট করার পর ওখান থেকে বারবার নটিফিকেশন আসা বন্ধ করুন

প্রায়ই দেখা যায় কোন একটা পোস্টে কমেন্ট করার পর সেখান থেকে বারবার নটিফিকেশন আসতে থাকে। অন্য যে কেউ ওই পোস্টে কমেন্ট করলে সেটার নটিফিকেশন আসে বারবার।

যা রীতিমত বিরক্তিকর এবং নটিফিকেশনেরর ভয়ে অনেকেই কমেন্ট করা থেকেই বিরত থাকে।

কোন পোস্টের নটিফিকেশন বন্ধ করতে ফেসবুক অ্যাপ থেকে এর ওপরের ডান পাশের কোণার তীর চিহ্নে ক্লিক করুন এবং সিলেক্ট করুন Turn off notification for this post.

যেভাবে ফেসবুক পেজ ভেরিফাই করবেন

যেভাবে ফেসবুক পেজ ভেরিফাই করবেন
  • আপনি যে ফেসবুক পেজটি ভেরিফাইড করতে চান প্রথমে সেই পেজ এ প্রবেশ করুন।
  • তারপর পেজ এর মেনু বারের উপরে Setting অপশানে ক্লিক করুন।
  • তারপর দেখতে পাবেন বাম পাশে General মেনু নামে একটি অপশান আছে সেখানে ক্লিক করুন।
  • এর পর Verify this Page নামে যে অপশান আছে সেখানে ক্লিক করুন।
  • Call me Now বাটনে ক্লিক করে আপনার মোবাইল নাম্বারটি দিন।
  • এবং ভেরিফিকেশন কোডটি আপনার পেজ এ দিন বা সেট করুন।
  • আপনি চাইলে আপার প্রয়োজনী কাগজ পত্র দিয়ে ভেরিফিকেশন করতে পারেন।

আর বিশেষ করে এই বিষয়ে বিস্তারিত দেখতে চাইলে ফেসবুকের অফিসিয়াল হেল্প লাইনে বিস্তারিত দেয়া আছে।

এবার জেনে নেয়া যাক যে সকল পেজ যাচাইয়ের জন্য যোগ্য। 

  • পরিচিত বা বিখ্যাত ব্যক্তি।
  • মিডিয়া ব্যক্তিত্ব, রাজনীতিবিদ ব্যক্তিত্ব, ক্রীড়া বা সংগীত ব্যক্তিত্ব।
  • ব্যবসায়ী মাঝে হল, গ্লোবাল ব্র্যান্ড।
  • সরকারি কর্মকর্তা

আপনার ফেসবুক পাতা যাচাই করতে যে কাগজ প্রয়োজন। 

  • জন্ম সনদ কপি।
  • পাসপোর্ট এর কপি।
  • ড্রাইভার লাইসেন্স এর কপি।

যে কাজ গুলো আপনার কমপ্লিট থাকতে হবে। 

  • আপনার পেজ এর “About”  কমপ্লিট থাকতে হবে।
  • এবং আপনর যে কোন Official website যোগ করে রাখতে হবে।

ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারের টিপস

ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারের টিপস

ফেসবুক সিক্রেট আইডি, ব্যক্তিগত তথ্য রাখুন সুরক্ষিত

ফেসবুক আমাদের জীবনের কতোটা অংশ জুড়ে আছে, আশা করি আর বলতে হবে না। কিন্তু ক্যামব্রিজ অ্যানালিটিকা স্ক্যান্ডাল ও ফেসবুক মানুষের ফোনের ব্যক্তিগত তথ্যে ঢুকে পড়া এই দুটি মারাত্মক অভিযোগ পাওয়া গেছে ফেসবুকের বিরুদ্ধে।

তাই বহির্বিশ্বে অনেকেই যুক্ত হচ্ছেন ‘ডিলিট ফেসবুক’ আন্দোলনের সাথে। কিন্তু ফেসবুক ছেড়ে দেওয়া তো চাট্টিখানি কথা নয়। কতো গুরুত্বপূর্ণ কাজ সেরে ফেলি আমরা ফেসবুকের মাধ্যমে।

কতো আবেগ ও জড়িয়ে থাকে এই ফেসবুকের সাথে। কিন্তু কেউ কি ভেবে দেখেছেন, ফেসবুক সিক্রেট আইডি তৈরি করলে কেমন হয়!

ইউনিক ইমেইল অথবা ফোন নাম্বার বানান

প্রথমত, আপনি যদি সুরক্ষিতভাবে ফেসবুক ব্যবহার করতে চান, তাহলে আপনাকে এমন একটি ইমেইল অথবা ফোন নাম্বার দিয়ে সাইন আপ করতে হবে, যেটি শুধু আপনার নতুন প্রোফাইলের জন্য ব্যবহৃত হবে।

কিন্তু আপনি যদি আগে থেকে ব্যবহৃত আপনার ইমেইল অথবা ফোন নাম্বার দিয়ে নতুন অ্যাকাউন্ট বানাতে যান, তাহলে আপনার মেসেজ, সার্চ হিস্টোরি, কানেক্টেড অ্যাপস এবং গেমস ইত্যাদিতে এক্সেস করে সহজেই ফেসবুক তার বিজ্ঞাপনের জন্য ফায়দা ওঠাতে পারে।

এ পর্যায়ে দুটো উপায় আছে-

প্রথম, আপনি আপনার সদ্য তৈরী করা ইমেইল দিয়ে সাইন আপ করতে পারেন ফেসবুকে, যেটা শুধু আপনার সিক্রেট আইডির জন্য ব্যবহৃত হবে, অন্য কোনো কাজের জন্য নয়।

এর জন্য আপনি যে কোনো ইমেইল কোম্পানির সার্ভিস ব্যবহার করতে পারেন, যেটা আপনার সবচেয়ে ভালো মনে হয়। আমরা সবাই জানি গুগল কতো বড়ো একটি কোম্পানি, তাই আমার মতে জিমেইল ব্যবহার করাই উচিত হবে।

কিন্ত আপনাকে এটাই নিশ্চিত করতে হবে যে, এই ইমেইলটি যাতে অন্য কোথাও ব্যবহৃত না হয়।

দ্বিতীয়ত, আপনি একটি মোবাইল নাম্বার ব্যবহার করতে পারেন ইমেইল অ্যাকাউন্টের পরিবর্তে, যদি আপনার ইমেইল পছন্দ না হয়।

এক্ষেত্রে , আপনাকে একটি ভুয়া নাম্বার ব্যবহার করতে হবে। আপনি অবশ্যই আপনার আসল ফোন নাম্বারটি ব্যবহার করবেন না, কারণ ফেসবুকের কাছে এক বিশাল ডাটাবেজ আছে নাম এবং ফোন নাম্বারের, তারা এগুলো সংরক্ষণ করে রাখে।

এ রকম ফেইক নাম্বার তৈরী করার সহজ উপায় হচ্ছে Google Voice এর মাধ্যমে আপনি আপনার আসল ফোন নাম্বারের মাধ্যমে একটি ফেইক নাম্বার বানাতে পারবেন।

কিন্তু ফেইক নাম্বারটি আসল নাম্বারের সাথে লিঙ্ক করা থাকবে, এক্ষেত্রে ফেসবুক আপনারা আসল নাম্বারের খোঁজ পাবে না কোনো সময়।

ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারের টিপস

আপনার ফোনে একটি নতুন ইউজার স্পেস সেটাপ করুন (শুধু অ্যান্ড্রয়েডের জন্য)

আপনি যদি আপনার অ্যান্ড্রয়েড দিয়ে একটি ফেসবুক একাউন্ট খুলেন, এটা ফেবুকের জন্য খুব সহজ কাজ হবে আপনার ব্যক্তিগত তথ্য গুলো উঠিয়ে নেওয়া যেগুলো আপনার মোবাইলে সংরক্ষিত আছে।

উপরন্তু আপনার আইডেন্টিটির হুবুহু কপি করতে পারবে ফেসবুক ,যা আপনার ক্ষেত্রে মারাত্মক ঝুঁকির কারণ হয়ে উঠতে পারে।

এই সমস্যারও সমাধান রয়েছে। আপনি যদি আপনার অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টফোনে নতুন একটি ইউজার স্পেস বানিয়ে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খোলেন অথবা ব্যবহার করেন, সেটা হবে অধিক নিরাপদ, এক্ষেত্রে আপনার নতুন ইউজার স্পেসে কোনো ব্যক্তিগত তথ্য রাখলে চলবে না।

নতুন ইউজার সেটাপ করার জন্য স্টেপগুলো অনুসরণ করুন-

open Settings –> Users & Accounts –> Users –> Add user

আপনার অ্যান্ড্রয়েড ভার্সনের ভিত্তিতে একটু এদিক সেদিক হতে পারে ইউজার সেটিংস খুঁজে পেতে, এক্ষেত্রে আপনি সেটিংস এ গিয়ে ইউজার লিখে সার্চ দিলেই পেয়ে যাবেন।

এরপর ইউজার খোলার জন্য একটি গুগল অ্যাকাউন্ট চাইতে পারে সেক্ষেত্রে আপনি স্কিপ করে চলে যাবেন। যদি প্লে স্টোর থেকে কিছু ইনস্টল করতে হয়, তাহলে আপনি আগের তৈরী করা ফেসবুকের ইমেইলটি ব্যবহার করতে পারেন।

এখন থেকে আপনি আপনার নিয়মিত কাজের জন্য সবসময় ব্যবহৃত ইউজার স্পেসটি ব্যবহার করবেন এবং ফেসবুক ব্যবহারের সময় নতুন তৈরী করা ইউজার স্পেসে সুইচ করে নেবেন।

ইউনিক ইমেইল এবং ফোন নাম্বারের মতো এই নতুন ইউজার স্পেসটি শুধু ফেসবুকের জন্য ব্যবহার করবেন অন্য কিছুর জন্য নয়। ইউজার পালটাতে আপনার সেটিংস এ গিয়ে ইউজারে গেলেই পুরোনো ইউজার টি দেখতে পাবেন।

user space

নিজেকে ফেসবুকের অফিসিয়াল অ্যাপ থেকে বিচ্ছিন্ন করে ফেলুন

আপনার স্মার্ট ফোনে ইনস্টল করা ফেসবুক অফিসিয়াল অ্যাপটিও আপনার ব্যক্তিগত তথ্য হাতিয়ে নিতে পারে। কারণ ফেসবুকের অফিসিয়াল অ্যাপের অনেক এক্সেস থাকে আপনার ফোনের।

এক্ষেত্রে আমি আপনাকে পরামর্শ দেব এদের অফিশিয়াল অ্যাপটি ব্যবহার না করার। আমি জানি আপনি কি ভাবছেন ! হ্যা ঠিকই, ফেসবুকের আসল মজা এই অ্যাপেই।

ফেবুকের অনেক ফিচার এই অ্যাপ ছাড়া পাওয়া যাবে না। কিন্তু কিছুই করার নেই। নিজে একটু নিরাপদ থাকতে গেলে এই ত্যাগ টুকু স্বীকার করতেই হবে।

যদি আপনি অ্যান্ড্রয়েড ইউজার হন তাহলে রয়েছে Metal নামের একটি অ্যাপ। এটি ফেবুকের রিপ্লেস অ্যাপ। এর আসল সুবিধা হচ্ছে এটি কোন বিজ্ঞাপন দেখাবে না এবং অফিসিয়াল অ্যাপের মতো এতো চার্জ খাবে না।

এছাড়াও কোনো ডিভাইস পারমিশন চাইবে না আপনার কাছে যেটা খুবই ভালো ব্যাপার। তবে এটা আপনাকে নিশ্চিত করতে হবে যে Metal অ্যাপটি আপনি আপনার ফেসবুকের জন্য খোলা ইউজার স্পেসে ইনস্টল করবেন। তাহলে নিরাপত্তার জন্য আর চিন্তা করতে হবে না।

কিন্তু আপনি যদি আইফোন ইউজার হন তাহলে দুঃখের বিষয় হচ্ছে যে এক্ষেত্রে Metal এর মতো কোনো অ্যাপ নেই। আপনাকে ব্রাউজারে ওয়েবসাইটেই ফেসবুক সার্ফিং করতে হবে।

ভিপিএন ইনস্টল করুন

একটা ব্যাপার থেকেই যায়, সেটা হলো আপনি যে কোনো উপায়েই হোক ফেসবুক ব্যবহার করলেই তারা আপনার লোকেশন জানবেই।

তাহলে ভালো একটি উপায় হলো ভিপিএন ব্যবহার করা। এখানকার ৫টি ফ্রি ভিপিএন সফট্‌ওয়্যার থেকে যে কোন একটি ভিপিএনে কান্ট্রি পালটিয়ে ব্যবহার করলে আর সমস্যা নেই।

শেষের কথা, আপনি না চাইলে ফেইক নাম, ছবি, ঠিকানা ব্যবহার করতে পারেন। ফেসবুক সিক্রেট আইডি খোলার জন্য আপনাকে সব কিছুই গোপন রাখতে হবে বলা বাহুল্য।

ফেসবুকে সিঙ্গেল নেম বা এক শব্দের নাম দিয়ে অ্যাকাউন্ট

 ফেসবুকে সিঙ্গেল নেম বা এক শব্দের নাম দিয়ে অ্যাকাউন্ট

কোটি কোটি ফেসবুক ইউজারদের মধ্যে সবাই চায় নিজের অ্যাকাউন্টটা একটু বিশেষ রকমের হোক।

আজকে আমি এমনই একটা বিষয় পদ্ধতি দেখাবো, যেটি ব্যবহার করে নিজের ফেসবুক আইডিটাকে বিশেষ বা স্পেশাল করে তুলতে পারবেন। এটি মূলত সিঙ্গেল নামের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খোলার প্রক্রিয়া।

সবচেয়ে সহজ ও কার্যকরী উপায়টিই আপনাদের সাথে শেয়ার করব। আগেই একটা কথা বলে রাখি, ফেসবুক শুধুমাত্র ইন্দোনেশিয়ার মানুষদেরই সিঙ্গেল নাম ব্যবহারের অনুমতি দেয়। কারণ ইন্দোনেশিয়ার নাগরিকদের নাম সাধারণত এক শব্দ বিশিষ্ট হয়।

তাই আমি ইন্দোনেশিয়ান প্রক্সি ব্যবহার করে এক শব্দের নাম দিয়ে আইডি খোলা শেখাব।

এক শব্দের নাম দিয়ে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট

ইন্দোনেশিয়া ছাড়া এক শব্দের নাম দিয়ে আর কোন দেশের মানুষ ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খুলতে পারে না। মানে ফেসবুক অন্য দেশের মানুষের জন্য সে অপশন রাখেনি।

কিন্তু প্রযুক্তির এই যুগে যেমন সবকিছুই সম্ভব, তেমনি বাংলাদেশ থেকেও সিঙ্গেল দিয়ে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খোলা অসম্ভব নয়। আসুন, জেনে নেই কিভাবে এমন একটি ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খুলবেন।

এক শব্দের নাম দিয়ে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট

যা যা লাগবে-

  • একটি অ্যান্ড্রয়েড ফোন (যে কোন ভার্সনের হলেই হবে)
  • একটি ভিপিএন সফট্‌ওয়্যার
  • গুগল ক্রোম ব্রাউজার

প্রক্রিয়া ১: প্রথমে আপনার মোবাইলে One Click VPN অ্যাপটি ইনস্টল দিন । অ্যাপটি আপনি গুগল প্লে স্টোরে পাবেন না। তাই নিচের দেওয়া লিংক থেকে ডাউনলোড দিয়ে নিন।ভিপিএন সফট্‌ওয়্যার

প্রক্রিয়া ২: অ্যাপটি ওপেন করুন, অ্যাপটি রিফ্রেশ হলে আপনি অনেকগুলো দেশের নাম পাবেন। সেখান থেকে ইন্দোনেশিয়া (Indonesia) সিলেক্ট করে কানেক্টে করুন। কানেক্ট হলে নোটিফিকেশন বারে Key দেখতে পাবেন। প্রথমটায় কানেক্টেড না হলে নিচে আবার ইন্দোনেশিয়া খুঁজে কানেক্টে করুন।

প্রক্রিয়া ৩: এবার ক্রোম Chrome ব্রাউজার ওপেন করুন। ব্রাউজারে লিখে কিংবা এখান থেকে কপি-পেস্ট করে web.facebook.com সাইটে প্রবেশ করুন। অবশ্যই web. হতে হবে, এটা মাথায় রাখতে হবে।

প্রক্রিয়া ৪: এবার ল্যাঙ্গুয়েজ সেটিংস অপশন থেকে ভাষা ইন্দোনেশিয়া (Bhasa Indonesia) সেভ করুন।

প্রক্রিয়া ৫: এবার create new account সিলেক্ট করুন। প্রথমেই নামের বক্স থাকবে। এখানে আপনার কাঙ্খিত সিঙ্গেল নামটি ইনপুট দিন। এরপর পর্যায়ক্রমে বাকি বক্সগুলো আপনার তথ্য দিয়ে পূরণ করুন। যেভাবে স্বাভাবিকভাবে আইডি খুলতে হয় সেভাবেই খুলুন।

হয়ে গেল আপনার সিঙ্গেল নেম আইডি। এবার উপভোগ করুন এক শব্দের নাম দিয়ে তেরি করা আপনার বিশেষ রকমের ফেসবুক আইডি। এখন আপনার কাঙ্খিত সিঙ্গেল নেমড ফেসবুক আইডি ব্যবহার করা শুরু করুন।

হ্যাকারের হাত থেকে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট নিরাপদ রাখার সহজ উপায়

 হ্যাকারের হাত থেকে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট নিরাপদ রাখার  সহজ উপায়

আমরা এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক নির্ভর হয়ে পড়েছি। প্রতিদিন ঘুম থেকে উঠে ফেসবুক ঘাটাঘাটি করা থেকে শুরু করে একে অন্যের সাথে যোগাযোগ করাসহ সবই ফেসবুকের মাধ্যমেই করে থাকি।

তবে এই ফেসবুকে দিনকে দিন অপরাধ বেড়েই চলছে। সাইবার ক্রাইম থেকে বাঁচতে হলে কিছু নিয়ম মেনে চলতে হবে। নিজের সুরক্ষার পাশাপাশি ফেসবুক অ্যাকাউন্টটি যাতে নিরাপদ থাকে সেই জন্য কিছু নিয়ম মেনে চলতে হবে আপনাদেরকে, তবেই আপনি আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টকে নিরাপদ রাখতে পারবেন।

ফেসবুক অ্যাকাউন্ট নিরাপদ রাখার উপায়

নিজের অজান্তেই আমরা আমাদের ফেসবুক অ্যাকাউন্টকে হুমকির মুখে ফেলে দেই। আমাদের ফেসবুক অ্যাকাউন্টটি যাতে হ্যাক না হয়ে যায়, সে জন্য কিছু সুরক্ষা ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

এমন ৮টি উপায় আছে যা আমাদের ফেসবুক অ্যাকাউন্টকে নিরাপদ রাখবে, সেই ৮টি উপায় নিচে আলোচনা করা হলো।

শক্তিশালী পাসওয়ার্ড

strong password

আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টকে নিরাপদ রাখার সবচেয়ে বড় উপায় হচ্ছে শক্তিশালী পাসওয়ার্ড ব্যবহার করা।

আমরা অনেকেই পাসওয়ার্ডে আমাদের নাম বা মোবাইল নাম্বার ব্যবহার করে থাকি, যেটা সবচেয়ে বড় একটা ভুল। পাসওয়ার্ডটি হতে হবে নাম্বার, অ্যালফাবেট এবং স্পেশাল ক্যারেক্টার মিশ্রিত।

সবচেয়ে ভালো হবে যদি বড় হাতের অক্ষর এবং ছোট হাতের অক্ষর মিলিয়ে একটা শক্তিশালী পাসওয়ার্ড তৈরি করা হয়, যেমন : $eCure-25r49 . তবে পাসওয়ার্ডটি যাতে অতিরিক্ত বড় না হয়ে যায় সেই ব্যাপারেও খেয়াল রাখতে হবে এবং এমন একটি পাসওয়ার্ড নির্ধারণ করবেন যেটা আপনার মনে থাকবে।

সঠিক তথ্য

ফেসবুকের নাম, জন্মতারিখ, লোকেশন ইত্যাদি তথ্যগুলো অবশ্যই সঠিক দিতে হবে। কারণ, আপনার অ্যাকাউন্টটি যদি হ্যাক হয়ে যায় তখন আপনাকে ফেসবুকের কাছে রিপোর্ট করে অ্যাকাউন্টটি ফেরত আনতে হলে অবশ্যই ন্যাশনাল আইডি বা পাসপোর্ট দিয়ে সঠিক প্রমাণ করতে হবে।

নামটি যদি ফেইক হয় কিংবা ভুল নামে অ্যাকাউন্ট খোলা হয়, তাহলে সঠিক তথ্য দিতে না পারায় আপনাকে আপনার অ্যাকাউন্টটি চিরতরের জন্য হারাতে হতে পারে।

তাই, সব সময় চেষ্টা করবেন সঠিক নাম দেওয়ার, যেই নামটা আপনার ন্যাশনাল আইডিতে আছে অথবা পাসপোর্টে আছে এবং একইভাবে জন্মতারিখ সঠিক দেওয়ার চেষ্টা করবেন (সমস্যা থাকলে অনলি-মি করে রেখে দিবেন জন্মতারিখ)

তবে বাংলাতে নাম লিখবেন না, এখনো পর্যন্ত ফেসবুক ১০০% বাংলা সাপোর্ট করে না।

টু ফ্যাক্টর অথেন্টিকেশন

টু ফ্যাক্টর অথেন্টিকেশন

যখন আপনি আপনার ফেসবুকে লগইন করতে যাবেন, তখন আপনার মোবাইল নাম্বারে একটি অনটাইম পাসওয়ার্ড এসএমএসের মাধ্যমে পাঠানো হবে এবং সেই কোডটি দেওয়ার পরই আপনি ফেসবুকে প্রবেশ করতে পারবেন।

এই টু ফ্যাক্টর অথেন্টিকেশনও ফেসবুকের নিরাপত্তা অনেকগুন বাড়িয়ে দেয়। সুতরাং, যদি টু ফ্যাক্টর অথেন্টিকেশন চালু করা না থাকে তবে আজই চালু করে নিন।

প্রয়োজনীয় তথ্য হাইড রাখুন

আপনার প্রয়োজনীয় তথ্যাদি ফেসবুক বা অন্য কোনো সোশাল মিডিয়াতে শেয়ার করবেন না বা উন্মুক্ত রাখবেন না। এখানে প্রয়োজনীয় তথ্য বলতে বুঝানো হয়েছে আপনার ই-মেইল বা মোবাইল নাম্বারকে।

যেই ই-মেইল বা মোবাইল নাম্বার দিয়ে আপনার অ্যাকাউন্ট খোলা হয়েছে সেই ই-মেইল বা মোবাইল নাম্বারটি সব সময় হাইড রাখার চেষ্টা করবেন।

যদি ফেসবুকে আপনার টুইটার বা গুগল প্লাস ইত্যাদি একাউন্টের লিংক যোগ করেন তাহলে নিশ্চিত হয়ে নিন যে, আপনার টুইটার বা গুগল প্লাস একাউন্টে কোনো প্রয়োজনীয় তথ্য ছিলো না।

মনে রাখবেন, হ্যাকাররা সব সময় ই-মেইল বা মোবাইল নাম্বারকেই প্রথমে টার্গেট করে হ্যাক করার চেষ্টা করে।

যেমন : আপনার মোবাইল নাম্বাটি তারা নকল করে অ্যাকাউন্ট হ্যাকের চেষ্টা করতে পারে। বর্তমানে অনেক সাইট আছে যেখানে নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থের বিনিময়ে অনলাইনেই সিম নাম্বার নকল করা সম্ভব এবং আপনার নাম্বারে যাওয়া কোনো এসএমএস তারা দেখে নিতে পারবে অনায়াসেই।

সুতরাং, প্রয়োজনীয় সব তথ্য হাইড/লুকিয়ে রাখুন।

অ্যাপ পারমিশন

অনেক সময় আমরা যখন ফেসবুক থেকে বিভিন্ন সাইটে ভিজিট করি অথবা আমরা যখন কোনো থার্ডপার্টি অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করতে যাই, তখন ফেসবুকে লগইন করার প্রয়োজন পড়ে।

অ্যাপ্লিকেশনগুলো ব্যবহার করতে হলে ফেসবুকে লগইন করতে হয় এবং তারা আপনার ফেসবুকে দেওয়া বিভিন্ন তথ্য দেখে নেয়।

অনেক ফানি টাইপের গেম বা অতীতে কি ছিলেন বা ভবিষ্যতে কি হতে পারবেন এরকম ফানি টাইপের অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করতে হলে তারা অ্যাপ পারমিশন চায়।

আপনি যখনই Continue তে ক্লিক করেন, তখন আপনার অজান্তেই তারা আপনার বিভিন্ন তথ্য দেখে নেয় এবং সেই তথ্য যাচাই-বাছাই করে একটা সম্ভাব্য তথ্য দেয় এবং অনেক সময় তা মিলে গেলে আমরা অবাক হই।

কিন্তু এ-সব অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহারের আগে তারা কি কি পারমিশন নিচ্ছে তা পড়ে দেখা উচিত এবং প্রয়োজনীয় অ্যাপ্লিকেশন বাদে অন্যান্য অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার থেকে বিরত থাকতে হবে।

কারণ,  অনেক সময় অ্যাপ পারমিশনে আপনার মোবাইল নাম্বার, ই-মেইলটি তারা রিসিভ করে এবং এর মাধ্যমেও আপনার পাসওয়ার্ডটি হ্যাক হয়ে যেতে পারে।

অচেনা লিংকে ক্লিক করবেন না

অচেনা লিংকে ক্লিক করবেন না

ফেসবুকে অনেক সময় অনেক ফ্রেন্ড বা অচেনা-অজানা ব্যক্তির থেকে অনেক সময় মেসেজের মাধ্যমে বিভিন্ন লিংক পেয়ে থাকি আমরা। কখনো ভুলেও সেইসব লিংকে ক্লিক করবেন না।

এইসব লিংক সাধারণত ফিশিং সাইট থেকে কপি করে বা হ্যাকারদের মাধ্যমে পাঠানো হয়। লিংকে ক্লিক করলে আপনার ই-মেইল এবং পাসওয়ার্ডটি সহজেই তারা জেনে যাবে এবং ফেসবুক অ্যাকাউন্টের অ্যাকসেস সহজেই তারা নিয়ে নিতে পারবে।

আগের লগইন সেশনগুলো রিমুভ করা

 আগের লগইন সেশনগুলো রিমুভ করা

আপনি আগে যে-সব ডিভাইস থেকে ফেসবুকে লগইন করেছিলেন সে-সব ডিভাইস লগআউট করতে হবে। আপনি ফেসবুকে লগইন করে Settings থেকে Security and Login-এ যেয়ে Where You’re Logged In থেকে Previous সব লগইন সেশন লগআউট করে দিবেন।

Log Out Of All Sessions-এ ক্লিক করলেই আগের লগইন করা সব ডিভাইস থেকে লগআউট হয়ে যাবে।

এটা করার মূল কারণ হলো, আপনি যদি অন্য কোনো ফ্রেন্ড বা আত্নীয়ের মোবাইল থেকে লগইন করে থাকেন এবং সেটা লগইন সেশন থেকে রিমুভ না করেন তাহলে টু ফ্যাক্টর অথেন্টিকেশন চালু থাকা সত্ত্বেও সেই ডিভাইসে লগইন পারমিশন থাকার কারণে টু ফ্যাক্টর অথেন্টিকেশন চাইবে না।

সেক্ষেত্রে আপনার ফেসবুকে সহজেই প্রবেশ করা সম্ভব হবে। এজন্যই আগের লগইন সেশনগুলো রিমুভ করা খুবই প্রয়োজনীয়।

অচেনা জায়গায় ফেসবুক লগইন করবেন না

অচেনা জায়গায় ফেসবুক লগইন করবেন না বলতে বুঝানো হচ্ছে অচেনা কোথাও যেমন : সাইবার ক্যাফে বা অচেনা কারোর ডিভাইস থেকে।

এর ফলে আপনার পাসওয়ার্ডটি হ্যাক হতে পারে। তাছাড়া সাইবার ক্যাফের কম্পিউটারে স্পাইওয়্যার থাকতে পারে, যারফলে পাসওয়ার্ডটি হ্যাক হয়ে যেতে পারে।

আশাকরি, যারা এই ৮টি উপায় মেনে চলবেন তারা তাদের ফেসবুক অ্যাকাউন্টকে ১০০% নিরাপদ রাখতে পারবেন। পোস্টটি থেকে যদি উপকার পেয়ে থাকেন তবে শেয়ার করে অন্যদেরকে সতর্ক হওয়ার সুযোগ করে দিন।

ফেসবুকের কিছু শর্টকাট টিপস

ফেসবুকের কিছু শর্টকাট টিপস

সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম ফেসবুক সব ধরনের সুবিধা রয়েছে যা আগে ছিলনা বা অনেকে জানেন ও না।

এই ফেসবুক এ অনেক ধরনের ফিচার রয়েছে যা ফেসবুক ব্যবহার করাকে আর ও সহজতর করে তুলবে সবাইকে।এই ফেসবুক কেও ফোনে, কম্পিউটার বা লেপটেপ এ ব্যবহার করে থাকি।

আর যারা ফেসবুক কম্পিউটার ডেস্কটপ এ ব্যবহার করে থাকেন তারা সহজে কিছু শর্টকাট ব্যবহার করে ফেসবুক চালানো সহজ করেতে পারন।

ফেসবুকের কিছু শর্টকাট

Bangla Facebook Tips: এখানে আপনি যদি ডেস্কটপ এ ফায়ারফক্স ব্যবহার করে থাকেন তাহলে নেচের যে শর্টকাট কি গুলো আছে সেগুলোর সঙ্গে (Shift) প্রেস করতে হবে।যেমনঃ Shift + Alt + 1 প্রেস করার সাথে সাথে চলে যাবে ফেসবুক হোম পেজ এ।

আর এখানে আপনি যদি ডেস্কটপ এ গুগল ক্রোম ব্যবহার করে থাকেন তাহলে নেচের যে শর্টকাট কি গুলো আছে সেগুলো শুধু Alt + 1 প্রেস করতে হবে।যেমনঃ Alt + 1 প্রেস করার সাথে সাথে চলে যাবে ফেসবুক হোম পেজ এ।

শর্টকাট কি গুলো হলঃ Bangla Facebook Tips: 

  • আপনি যদি Alt + 1 প্রেস করেন তাহলে চলে যাবে ফেসবুক হোম পেজ এ।
  • আপনি যদি Alt + 2 প্রেস করেন তাহলে চলে যাবে ফেসবুক প্রোফাইল ওয়াল।
  • আপনি যদি Alt + 3 প্রেস করেন তাহলে চলে যাবে আপনাকে কে ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট দিয়েছে সেই লিস্ট এ।
  • আপনি যদি Alt + 4 প্রেস করেন তাহলে চলে যাবে মেসেজ পাঠালো কে আপনাকে।
  • আপনি যদি Alt + 5 প্রেস করেন তাহলে চলে যাবে আপনার নোটিফিকেশন বস্ক এ।
  • আপনি যদি Alt + 6 প্রেস করেন তাহলে চলে যাবে আপনার অ্যাকাউন্ট সেটিংসে এ।
  • আপনি যদি Alt + 7 প্রেস করেন তাহলে চলে যাবে আপনার অ্যাকাউন্ট প্রাইভেসি সেটিংস এ।
  • আপনি যদি Alt + 8 প্রেস করেন তাহলে চলে যাবে আপনার ফ্যান পেইজ এ।
  • আপনি যদি Alt + 9 প্রেস করেন তাহলে চলে যাবে আপনার রেসপনসিবিলিটি এ।
  • আপনি যদি Alt + 0 প্রেস করেন তাহলে চলে যাবে আপনার হেল্প সেন্টার এ।
  • আপনি যদি Alt + m প্রেস করেন তাহলে চলে যাবে আপনার মেসেজ বক্স এ। Bangla Facebook Tips

ব্যবহারের সঠিক নিয়মাবলী এবং উল্লিখিত ২৫টি ফেসবুক টিপস্ জানা থাকলে সকল প্রকার ঝামেলা এড়িয়ে বহুল জনপ্রিয় সোশাল নেটওয়ার্ক ফেসবুক ব্যবহার হয় আরো সহজতর।

নিরাপদে ফেসবুক ব্যবহারের জন্য এই ফেসবুক টিপস্ গুলো জেনে রাখা প্রত্যেকের জন্যই জরুরি। প্রয়োজনের মুহূর্তে যে কোন ফেসবুক টিপস্ কাজে আসতে পারে। তাই, আপনার ওয়ালে শেয়ার করে পোস্টটি আজীবনের জন্য সেভ করে রাখুন। অসংখ্য ধন্যবাদ সময় দিয়ে পড়ার জন্য।

Leave A Reply

Please enter your comment!
Please enter your name here

সর্বশেষ

কেন জামরুল ফল খাবেন? জামরুলের ১০টি স্বাস্থ্য উপকারিতা

বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মধ্যে ভারত, ইন্দোনেশিয়া, শ্রীলংকা, ফিলিপাইন, থাইল্যান্ডে প্রচুর জামরুল হয়। বাংলাদেশেও এখন বাণিজ্যিকভাবে জামরুলের চাষ হচ্ছে। সাধারণত মাঘ মাস...

মা এখনো অংক বুঝেনা!

মিষ্টি মায়ের দুষ্টু ছেলে, স্টেটাস থেকে » ১ টা রুটি চাইলে ২ টা নিয়ে আসে! স্কুল যাওয়ার সময় ২০ টাকা চাইলে...

5,000+ Bangla Shayri (২০১৯ সেরা বাংলা সায়েরী)

Hello shayri love‍rs! In this post we share 2019 best new bangla shayri in bengali , love shayari in bengali for...

ই পাসপোর্ট(E-passport): আবেদন প্রক্রিয়া, ফি ও সকল সুযোগ-সুবিধা‬ সমূহ

ই পাসপোর্ট কি? ই পাসপোর্ট (E passport bangladesh) বাংলাদেশ ও বিদেশ থেকে কিভাবে ই পাসপোর্ট জন্য আবেদন করবেন? আমরা এই পোষ্টে...

Related Stories