এক প্যাকেট কনডমের দাম ৬৪,০০০ টাকা!

504
এক প্যাকেট কন্ডোমের দাম ৬৪,০০০ টাকা!

সস্তার কন্ডোম কিনে অনাকাঙ্খিত গর্ভধারণের ঝুঁকি নিতে নারাজ ভেনিজুয়েলা দেশের তরুণ প্রজন্মের।

সমস্যাটা দীর্ঘদিনের। বর্তমানে যা রীতিমতো মাথা ব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে দেশের লক্ষ লক্ষ মানুষের। কী সেই মাথা ব্যথার কারণ? সঙ্গম, যৌন জীবন। বিশ্বাস হচ্ছে না! হ্যাঁ, সঙ্গম বা যৌন সংসর্গে লিপ্ত হওয়ার আগে অন্তত দশবার ভাবতে হচ্ছে ভেনিজুয়েলা দেশের নাগরিকদের।

না, সঙ্গম, যৌন সংসর্গ বা স্বাভাবিক যৌন জীবনে কোনও রকম বাধা-নিষেধ নেই সে দেশে। তবে হ্যাঁ, গর্ভপাত করানো নিষিদ্ধ ভেনিজুয়েলায়। আর তাই সুরক্ষিত যৌন জীবন অত্যন্ত জরুরি ভেনিজুয়েলার নাগরিকদের কাছে।

ভাবছেন, তাতে সমস্যা কোথায়! সমস্যা হল, বর্তমানে ভেনিজুয়েলায় কন্ডোম বা গর্ভনিরোধক ওষুধের দাম এখন আকাশ ছোঁয়া! সস্তার কন্ডোম কিনে অনাকাঙ্খিত গর্ভধারণের ঝুঁকি নিতে নারাজ সে দেশের তরুণ প্রজন্ম। আর ভাল মানের কন্ডোম মানেই তা বিদেশ থেকে আমদানি করা। ফলে সেগুলির দামও অনেক বেশি।

আরও পড়ুন: লজ্জা নয় জানতে হবে; বেশিক্ষন বীর্য ধরে রাখার বিশেষ টিপস

বিবিসি-তে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন অনুযায়ী, এক প্যাকেট কন্ডোমের দাম প্রায় ৭৫৫ থেকে ৮০০ মার্কিন ডলার। অর্থাৎ বাংলাদেশের টাকায় যা প্রায় ৬৪,০০০ হাজার টাকা! গর্ভনিরোধক ওষুধের দামও কিছু কম নয়! তাই অপারগ হয়ে সোনা বা হিরের দামেই নিজেদের যৌন জীবন সুরক্ষিত করতে বাধ্য হচ্ছে ভেনিজুয়েলার মানুষ। লম্বা লাইন দিয়ে ‘আকাশ ছোঁয়া’ দামেই কিনছেন কন্ডোম বা গর্ভনিরোধক ওষুধ। কারণ, সস্তার গর্ভনিরোধক ব্যবস্থা মাঝ পথে ব্যর্থ হলে গর্ভধারণের একটা ঝুঁকি থেকেই যায়। আর একবার গর্ভধারণের পর গর্ভপাত করানোর কোনও উপায় নেই! কারণ, ভেনিজুয়েলায় গর্ভপাত করানো কঠোর শাস্তিযোগ্য অপরাধ।

সুতরাং, হয় যৌন জীবনে অকাল অবসর, না হয় সোনার দামে কন্ডোম বা গর্ভনিরোধক ওষুধ কেনা ছাড়া ভেনিজুয়েলার নাগরিকদের কাছে আর কোনও উপায় নেই আপাতত!

[ প্রিয় পাঠক, আপনিও সম্ভব ডটকমের অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, এখন আমি কী করব, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ ইনবক্স করুন- আমাদের ফেসবুকে প্রতিদিনের স্বাস্থ্য টিপস লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।