পুরুষের শুক্রাণু বৃদ্ধির ৪০টি উপায়; এবং শুক্রাণু বৃদ্ধির ২০টি খাবার

0
72
সুক্রাণু

পুরুষত্বহীনতা বা পুরুষদের বন্ধ্যাত্বের চিকিত্‍‌সায় আয়ুর্বেদে মধুর ব্যবহার নতুন নয়। আয়ুর্বেদশাস্ত্রে উল্লেখ রয়েছে, মধু মিশিয়ে নিয়মিত এক গ্লাস করে দুধ খেলে স্পার্ম কাউন্ট শূন্য থেকে বেড়ে ৬ কোটি পর্যন্ত হতে পারে। ভাবছেন এটা কিভাবে সম্ভব

মানবদেহে  শুক্রাণুর প্রয়োজনীয়তা অপরিসীম। আপনি কি আপনার জীবনে নতুন অতিথি চান?  যে আপনার ঘর আলো করে আসবে? যার হাসি-কান্নায় ভরে তুলবে আপনার মন, এক সময় বাবা-মা বলেও ডাকবে সে। আর আপনার অপূর্ণ জীবনকে পরিপূর্ণ করবে

যদি সেটাই চান, তাহলে এখন থেকেই প্রস্তুতি নিন। জেনে রাখুন সন্তান চাইলে শুধুমাত্র নারীদের খাবারের ওপরে বিশেষ নজর দিলেই চলে না, পুরুষদেরও উর্বরতা বৃদ্ধির জন্য ভালো খাবার খেতে হবে।

বিশেষজ্ঞদের মতে, দুধের মধ্যে থাকা ভিটামিন এ পুরুষ সেক্স হরমোনের পরিমাণ বাড়ায়। অন্যদিকে, মধুতে থাকা ভিটামিন ই ও জিঙ্ক সেক্স স্টিমুল্যান্ট হিসেবে কাজ করে পুরুষদের যৌনশক্তি বাড়ায়।অনলাইন এক সমীক্ষায় জানা গেছে, ১৮ থেকে ৫০-এর মধ্যে বয়স এমন ১০ শতাংশ পুরুষই লো স্পার্ম কাউন্টের শিকার। তাই নিয়মিত মধু মিশিয়ে দুধ খেলে ভালো উপকার পাওয়া যাবে।

বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, ঘরোয়া বেশ কিছু উপায়ে শুক্রাণুর সংখ্যা বাড়ানো যায়। তবে, দুধু ও মধুই এর মধ্যে সহজলভ্য। এক গ্রাস দুধ ভালো করে ফুটিয়ে নিয়ে, তাতে মধু মিশিয়ে পান করতে হবে। নিয়মিত কিছুদিন খেলে বীর্যে স্বাস্থ্যকর শুক্রাণুর সংখ্যা বাড়বে।

এর বাইরেও যৌনশক্তি বাড়াতে চাইলে আরও কিছু ঘরোয়া উপায় রয়েছে। রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে ২/৩ কোয়া রসুন মধুর সঙ্গে মিশিয়ে খেলে উপকার পাবেন।

গর্ভধারণের সম্ভাবনা যদি উন্নত করতে চান, তাহলে উন্নত জীবনধারা বেছে নিতে হবে। সঠিক আহারই, উর্বরতা বৃদ্ধিতে আপনাকে সাহায্য করতে পারে।

পরিসংখ্যান অনুযায়ী, পুরুষদের প্রায় এক-পঞ্চমাংশ শুক্রাণু সমস্যায় ভোগেন। কাজের চাপ, মানসিক চাপ, জীবনধারা এবং বিশেষত ভুল খাদ্যাভাস পুরুষদের অনুর্বরতার কারণ হতে পারে।

তবে এই ধরনের সমস্যা হ্রাস করা যেতে পারে স্বাস্থ্যকর খাদ্যের মাধ্যমে। এভাবে উর্বরতার পাশাপাশি ডিএনএ`র স্বাস্থ্য রক্ষা করা যায়, যা আপনার সন্তানের ওপর বর্তাবে। এছাড়া স্বাস্থ্যকর খাদ্য আপনার কামশক্তি বৃদ্ধিতেও সাহায্য করতে পারে।

আরো পড়ুন: “সরি আমার কিছু করার নেই”

শুক্রাণুর নিয়ে কিছু ভূল ধারণা

শুক্রাণুর নিয়ে কিছু ভূল ধারণা

শুক্রানু সংখ্যা বৃদ্ধির উপায় বলার আগে চলুন এ বিষয়ে কিছু ভুল ধারনা সম্পর্কে যানা যাক। কিছু মানুষ মনে করেন তার বীর্যের পরিমান এবং রঙের দিকে তাকিয়ে নিঃস্বরিত বীর্যে শুক্রানুর সংখ্যা অনুমান করা সম্ভব! বীর্যের পরিমান দিয়ে কোন পুরুষের বন্ধত্ব কিংবা সন্তান জন্মদানের ক্ষমতা নির্ধারন করা যায়না। বীর্যের বেশিরভাগ অংশ বীর্য-তরল, তাই খালি চোখে আমরা যা দেখি তা দিয়ে দৃশ্যমান বীর্যে শুক্রানুর সংখ্যা নিরূপন করা করা অসম্ভব। বীর্যে শুক্রানুর পরিমান/সংখ্যা জানতে তা মাইক্রোস্কপে পরীক্ষা করা অবশ্যক।

আরো পড়ুন: লজ্জা নয় জানতে হবে; বেশিক্ষন বীর্য ধরে রাখার বিশেষ টিপস

কিছু মানুষ মনে করে খৎনা না করা লিঙ্গ পুরুষের সন্তান জন্মদান ক্ষমতাকে ক্ষতিসাধন করতে পারে। খৎনা এবং শুক্রানুর সংখ্যার সাথে কোন পারস্পরিক সম্পর্ক নেই। খৎনা হলো শুধুমাত্র লিঙ্গের অগ্রভাগ থেকে কিছুটা চামড়া কেটে ফেলা মাত্র। খৎনা নিয়ে জাতি এবং ধর্মবেধে মতপার্থক্য থাকতে পারে। কিন্তু লিঙ্গের অগ্রভাগে চামড়া থাকা এবং না থাকার সাথে বীর্যে শুক্রানুর সংখ্যায় কো ন পার্থক্য হয়না।  

অন্য একটি ভুল ধারনা হলো, যৌন পুরুষোচিত তেজ এর ভিত্তিতে একজন পুরুষ বলতে পারে তার বীর্য কতটা উর্বর। উন্নত যৌনক্ষমতা থাকা হয়তো আনন্দের, কিন্তু তা পুরুষের সন্তান জন্মদান ক্ষমতা এবং বীর্যে শুক্রানুর সংখ্যা পরিমানের সাথে কোন প্রকার সম্পর্কযুক্ত নয়। শুক্রানুর সংখ্যার সাথে অনেকগুলো কারন জড়িত থাকতে পারে, কিন্তু ভাল যৌনমিলন ক্ষমতা এর সাথে সম্পর্কিত নয়। 

শুক্রাণুর সংখ্যা বৃদ্ধির পাঁচটি উপায়

শুক্রাণুর সংখ্যা বৃদ্ধির পাঁচটি উপায়

ধুমপান করবেন না

এখনাকার সময় সবাই যানে ধুমপান স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। গবেষণায় দেখা গেছে ধুমপান শুধুমাত্র মোটের উপর স্বস্থ্যের জন্য ঝুকিপুর্ন নয়, এটি আপনার সন্তান জন্মদান ক্ষমতাও ধ্বংস করতে পারে। এক স্টাডিতে দেখা গেছে, যেসকল পুরুষ ধুমপান করেন তাদের বীর্যে শুক্রানুর পরিমান যারা ধুমপান করেননা তাদের তুলনায় ১৭% কম। 

আরো পড়ুন: যৌন বিশেষজ্ঞ ডাক্তারদের গুরুত্বপূর্ণ ১০১টি প্রশ্ন উত্তর!

মদ কিংবা অন্য মাদক পরিহার করুন

অতিরিক্ত মদ্যপান অথবা মাদকের ব্যবহার উর্বরতা নষ্ট করতে পারে। যেসকল পুরুষ দিনে ৪ গ্লাসের বেশি মদ্যপান করে থাকেন তাদের শুধুমাত্র সন্তান জন্মদান ক্ষমতা নয় – মোটের উপর যৌনক্ষমতা হ্রাস পেতে থাকে। পাশাপাশি অধিক মাদক গ্রহন পুরুষের লিঙ্গের দৃঢ়তা ধরে রাখা ব্যহত করে যা স্থায়ী যৌন অক্ষমতায় রূপ নিতে পারে।

স্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস বজায় রাখুন

পর্যপ্ত পুষ্টিযুক্ত খাবার, নিয়মিত শরীর চর্চা এবং শরীরের সঠিক ওজন ধরে রাখার মাধ্যমে উর্বরতা (fertility) উন্নয়ন করা যায়। শাকসব্জি এবং ফলমুল খাদ্য তালিকায় থাকলে স্বাস্থ্য ভাল থাকে যা উর্বরতায় (fertility) ভুমিকা রাখে। গবেষনায় দেখা গেছে শাকাসব্জি ও ফলমুলে বিদ্যমান এন্টিঅক্সিডেন্ট উর্বরতা (fertility) এর জন্য অনেক বেশি উপকারী। পাশাপাশি সঠিক শাররীক ওজনও একটি গুরুত্বপুর্ন বিষয়। অতিরিক্ত মেদযুক্ত পুরুষের শুক্রানুর সংখ্যা এবং শুক্রানুর গুনগত মান উভয়ই খারাপ হয়ে থাকে।

‘লাল’ সব্জী ভক্ষণ

গত মাসে ওহিও ক্লিভল্যান্ড ক্লিনিক থেকে প্রকাশিত একটি গবেষণা পত্র অনুযায়ী খাদ্যে লাইকোপেনের উপস্থিতি ৭০% অবধি স্পার্ম কাউন্ট বাড়িয়ে তুলতে পাড়ে। শুক্রাণুর গতি এবং ঘনত্ব বাড়িয়ে তোলে। লাইকোপেন লাল সব্জী যেমন টম্যাটো, স্টবেরি, চেরি ও লাল ক্যাপসিকমের মধ্যে পাওয়া যায়।

কোলে ল্যাপটপ রেখে কাজ না করা

দীর্ঘক্ষণ ধরে কোলে ল্যাপটপ রেখে কাজ করলে স্পার্ম কাউন্ট কমে যায়। কমে যায় শুক্রাণুর গতি। শুক্রাণুর ডিএনএ-তে পরিবর্তন দেখা যায়। ল্যাপটপের সঙ্গে যদি WiFi কানেকশন থাকে তাহলে এই সমস্যা বৃদ্ধি পায়।

কম সময় ধরে সাইক্লিং করা

সাইকেল চালানো একটি উন্নত মানের ব্যায়াম হলেও দীর্ঘক্ষণ ধরে সাইকেলে বসে থাকলে শুক্রাণুর উপর তার ক্ষতিকারক প্রভাব পরে। ২০০৯ সালে স্পেনের একটি স্পোর্টস মেডিসিন সংস্থার প্রকাশিত গবেষণা অনুযায়ী দীর্ঘক্ষণ সাইকেলে বসে থাকলে স্পার্মাটোজোয়ার সাধারণ আকার নষ্ট হয়। গড়ে ৩৩ বছর বয়সী স্পেনের ১৫ জন ট্রায়াটলিথসের উপর পরীক্ষা চালিয়ে দেখা গেছে যাঁরা সপ্তাহে ৩০০ কিলোমিটার সাইক্লিং করেন তাঁদের ফার্টিলিটি নিয়ে সমস্যা দেখা দেয়।

আরো পড়ুন: প্রথম সেক্স করার ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় ১০টি টিপস ✅

বেশি গরমের মধ্যে না থাকা

৩৪.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস শুক্রাণু তৈরি হওয়ার আদর্শ উষ্ণতা। এই উষ্ণতা দেহের স্বাভাবিক উষ্ণতার থেকে কিছু কম। ক্যালিফোরনিয়ার একটি বিশ্ববিদ্যালয় টানা তিন বছর গবেষণা করে দেখেছে যে সমস্ত পুরুষরা হট বাথ নেওয়া বন্ধ করেছেন তাঁদের স্পার্ম কাউন্ট গড়ে ৫০০% বৃদ্ধি পেয়েছে।

কফি খান, কিন্তু অল্প

২০০৩ সালে ব্রাজিলের সাও পাওলো বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা ৭৫০ জন প্রাপ্তবয়স্ক পুরুষের উপর পরীক্ষা করে দেখেছেন কফি স্পার্মের মোবিলিটি বৃদ্ধি করে। অন্যদিকে, দিনে তিন বা ততোধিকবার কফি খেলে স্পার্মের জেনেটিক মিউটেশন ঘটে। ফলে শুক্রাণুর ডিম্বাণুকে নিষিক্ত করার ক্ষমতা হ্রাস পায়।

যৌনমিলন করুন

আপনি হয়তো মনে করছেন যৌনমিলন করা সন্তান প্রত্যশি যুগলের জন্য ভাল জিনিস, কিন্তু অনেক যগলের ভুল ধারনা আছে যে মাত্রতিরিক্ত শাররীক মিলন করলে বীর্যে শুক্রানুর পরিমান কমে যায়। তথ্যটি একসময় সত্য ছিল – কিন্তু বর্তমানে সুঠাম স্বাস্থ্যবান (মোটা নয়) পুরুষের ক্ষেত্রে এটি ভুল ধারনা বলে প্রমানিত হয়েছে। একসময় ডাক্তার এমন পরামর্শ দিতেন যে, যেসকল পুরুষের শুক্রানু সংখ্যা কম তারা কিছুদিন শাররীক মিলনে বিরতি দিয়ে শুক্রানু জমা করে শাররীক মিলন করতে পারেন।

যদিও অনিয়মিত যৌনমিলন হয়তো সংখ্যায় কোনক্রমে উন্নত হয়, একই সাথে শুক্রানুর গুনগত মানে এর নেগেটিভ ইফেক্ট আছে। যখন একজন পুরুষ নিয়মিত যৌনমিলন করে তখন প্রতিবার বীর্যস্থলনের সময় সে তার ক্রুটিপুর্ন শুক্রানুর একটা অংশ নিষ্কৃত করে। এভাবে ক্রুটিপুর্ন শুক্রানু নির্গত করে সে স্বাস্থ্যবান শুক্রানু উৎপাদনের জন্য যায়গা খালি করে। সকালবেলা যৌনমিলন করলেও লাভবান হবার সম্ভাবনা আছে। গবেষণায় দেখা গেছে সকালবেলা প্রাকৃতিক ভাবেই বীর্যে শুক্রানু সংখ্যা সর্বোচ্চ পরিমানে থাকে।

স্পার্ম বৃদ্ধির উপায়

কোনো দম্পতির পরিবার শুরু করার প্রচেষ্টায় একটি কমন প্রতিবন্ধকতা হতে পারে পুরুষের বন্ধ্যাত্ব। প্রকৃতপক্ষে, যেসব দম্পতির কনসিভ করতে সমস্যা হয় তাদের মধ্যে এক-তৃতীয়াংশের সমস্যার প্রত্যক্ষ কারণ হচ্ছে, পুরুষের বন্ধ্যাত্ব।

জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের মতে এ সমস্যা দিন দিন বেড়েই চলছে। ২০১৭ সালে হিউম্যান রিপ্রোডাকশন আপডেট জার্নালে প্রকাশিত একটি গবেষণা অনুসারে, বিগত ৪০ বছরে পশ্চিমা দেশগুলোতে পুরুষের স্পার্ম কাউন্ট বা শুক্রাণু সংখ্যা ৫০ শতাংশ হ্রাস পেয়েছে। গবেষণা সহ-লেখক হ্যাগাই লেভিন বলেন, ‘যদি এই প্রবণতা চলতেই থাকে, তাহলে মানব জাতি একদিন বিলুপ্ত হয়ে যেতে পারে।’

স্পার্ম কাউন্ট বা শুক্রাণুর সংখ্যা হ্রাসের সঠিক কারণ নির্ণয় করা কঠিন হলেও বিজ্ঞানীরা ধারণা করছেন যে, অলস জীবনযাপন, স্থূলতা সমস্যা ও মদ্যপানের অভ্যাস এ সমস্যায় অবদান রাখতে পারে।

আপনি মনে করতে পারেন যে স্পার্ম কাউন্ট হচ্ছে পুরুষের উর্বরতার সর্বাধিক নির্ভরযোগ্য নির্দেশক, কিন্তু এটিই একমাত্র ফ্যাক্টর নয়। অন্য যা কিছু আপনার স্পার্ম বা শুক্রাণু শক্তিশালী ও স্বাস্থ্যবান কিনা নির্দেশ করে, তা হচ্ছে-

কোয়ান্টিটি

আপনার বীর্যে কি পরিমাণে স্পার্ম আছে। যেসব পুরুষের প্রতি মিলিলিটার বীর্যে ১৫ মিলিয়নের কম স্পার্ম আছে তা লো স্পার্ম কাউন্ট বলে বিবেচিত হয়।

মোটিলিটি বা শুক্রাণুর গতি

আপনার স্পার্ম ডিম্বকে ইমপ্লান্ট করার জন্য কত ভালোভাবে চলতে পারে।

মরফোলজি

আপনার স্পার্মের আকার ও আকৃতি। স্বাভাবিক আকারের স্পার্মে ডিম্বাকৃতির মাথা ও লম্বা লেজ থাকে, যেখানে অস্বাভাবিক স্পার্মে বিকৃত মাথা ও বাঁকা লেজ বা অনেক লেজ থাকতে পারে।

আপনার স্পার্মের সার্বিক স্বাস্থ্যের উন্নয়ন ও গতি দ্রুত করতে বিজ্ঞান-সমর্থিত ৬টি পরামর্শ দেওয়া হলো।

সঠিক খাবার খান

ফল ও শাকসবজি খাওয়ার অন্যতম কারণ হচ্ছে: যেসব পুরুষ অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট সমৃদ্ধ কৃষিজাত খাবার খায়, তাদের স্পার্মের ঘনত্ব উচ্চ হয়। ইউরোলজিস্ট আলী দাবাজা ম্যান’স হেলথ ডটকমকে বলেন, ‘স্পার্ম কোয়ালিটির ওপর নেতিবাচক প্রভাব ফেলে এমন একটি ফ্যাক্টর হচ্ছে অক্সিডেটিভ স্ট্রেস।’ অক্সিডেটিভ স্ট্রেস তখনই হয় যখন আমাদের শরীরে ফ্রি র‍্যাডিকেল নামক আনস্টেবল অ্যাটম বেশি হয়ে যায়। অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট এসব ক্ষতিকর পদার্থকে দমন করতে সাহায্য করে।

ডা. দাবাজা দিনে কয়েকবার অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট সমৃদ্ধ খাবার খেতে পরামর্শ দিচ্ছেন, যেমন- বেরি ফল। আপনার ব্রেকফাস্টে ব্লুবেরি ফল রাখুন, কারণ এককাপ ব্লুবেরিতে ৯০১৯ অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট থাকে। অ্যান্টিঅক্সিড্যান্টের অন্যান্য ভালো উৎস হচ্ছে আলুবোখারা, ব্ল্যাকবেরি ও আঙুর। ডা. দাবাজা পর্যাপ্ত পরিমাণে ভিটামিন ই গ্রহণেরও পরামর্শ দিচ্ছেন। গবেষণায় পাওয়া গেছে যে, ভিটামিন সি এবং ইও স্পার্মের গঠন উন্নত করতে পারে। ভিটামিন ই গ্রহণের জন্য পরামর্শকৃত অ্যাডাল্ট ডোজ হচ্ছে দিনে ১৫ মিলিগ্রাম।

অ্যালকোহল সেবন সীমিত করুন

হ্যাপি আওয়ার ও ডিনারে অ্যালকোহল সেবন করবেন কিনা পুনরায় বিবেচনা করুন। ডা. দাবাজা বলেন, ‘অ্যালকোহল স্পার্মের জন্য ক্ষতিকর হতে পারে।’ কতটুকু অ্যালকোহল অত্যধিক হবে? ডা. দাবাজার মতে, সপ্তাহে ১০-১৫ ড্রিংকের বেশি। তিনি বলেন, পুরুষদের স্পার্ম কাউন্ট বুস্টিং প্রচেষ্টার ক্ষেত্রে সপ্তাহে তিন থেকে পাঁচ ড্রিংকের বেশি অ্যালকোহল সেবন করা উচিত নয়।

ওজন নিয়ন্ত্রণ করুন

গতবছর প্রকাশিত একটি গবেষণায় পাওয়া যায়, অতিরিক্ত ওজন বা স্থূল পুরুষদের নিম্ন বিএমআই (বডি মাস ইনডেক্স) থাকা পুরুষদের তুলনায় স্পার্ম কাউন্ট ও মোটিলিটি কম ছিল। ডা. দাবাজা জোর দিয়ে বলেন, ‘যদি আপনার শরীরে প্রচুর চর্বি থাকে, তাহলে আপনার শরীরে প্রচুর অক্সিডেটিভ স্ট্রেস হবে।’ তিনি রোগীদেরকে স্লিম থাকার জন্য নিয়মিত ব্যায়াম করতে পরামর্শ দেন।

হট বাথ পরিহার করুন

ডা. দাবাজা সতর্ক করেন, ‘হট টাবের উচ্চ তাপমাত্রা আপনার অণ্ডকোষের তাপমাত্রা বৃদ্ধি করতে পারে, যা স্পার্ম হ্রাস করতে পারে।’ ২০১৩ সালের একটি গবেষণায় পাওয়া যায়, যারা সপ্তাহে দুইবার হট টাব ব্যবহার করেছে তাদের স্পার্ম কাউন্ট ও মোটিলিটি হ্রাস পেয়েছে।

টাইট অন্তর্বাস বর্জন করুন

টাইট অন্তর্বাস ও প্যান্ট পরিধান আপনার অণ্ডকোষকে অতিরিক্ত উত্তপ্ত করতে পারে। ডা. দাবাজা বলেন, ‘যদি আপনি এমন অন্তর্বাস পরেন যা আপনার অণ্ডকোষকে শরীরের সঙ্গে চেপে রাখে, তাহলে আপনার অণ্ডকোষীয় তাপমাত্রা বৃদ্ধি পাবে।’ লুজ বক্সার অথবা ময়েশ্চার-উইকিং কিংবা বক্সার ব্রিফ বেছে নিতে পারেন।

আকুপাংচার করুন

স্পার্ম কোয়ালিটির ওপর আকুপাংচারের প্রত্যক্ষ প্রভাব নেই; কিন্তু গবেষণায় পাওয়া গেছে যে এটি স্ট্রেস বা মানসিক চাপ হ্রাস করে, যা স্পার্ম কাউন্টের জন্য সহায়ক। ২০১৭ সালে গবেষকরা আবিষ্কার করেছেন যে, উচ্চ স্ট্রেস লেভেলের পুরুষদের নিম্ন স্ট্রেস লেভেলের পুরুষদের তুলনায় স্পার্ম কাউন্ট ও মোটিলিটি কম ছিল। ডা. দাবাজার মতে, ‘সুস্থ শরীর=সুস্থ স্পার্ম।’

তথ্যসূত্র : ম্যান’স হেলথ

শুক্রাণু বৃদ্ধির খাবার সমূহ

শুক্রাণু বৃদ্ধির খাবার সমূহ

শরীরের পুষ্টির জন্য প্রয়োজন সুষম খাদ্য। পুষ্টিকর খাদ্য শুধুমাত্র আপনার শারীরিক সুস্থতা বজায় রাখে শুধু তাই নয় যৌন স্বাস্হ্যের ওপরও এর প্রভাব পড়ে। আমাদের দৈনন্দিন খাবার তালিকায় কিছু পুষ্টিকর খাবার সংযোজনই পারে পুরুষদের শুক্রানুর পরিমাণ এবং গুণগত মান বাড়াতে। পরিসংখ্যান অনুযায়ী, পুরুষদের প্রায় এক-পঞ্চমাংশ শুক্রাণু সমস্যায় ভোগেন। কাজের চাপ, মানসিক চাপ, জীবনধারা এবং বিশেষত ভুল খাদ্যাভাস পুরুষদের অনুর্বরতার কারণ হতে পারে। তবে এই ধরনের সমস্যা হ্রাস করা যেতে পারে স্বাস্থ্যকর খাদ্যের মাধ্যমে। এছাড়া স্বাস্থ্যকর খাদ্য আপনার কামশক্তি বৃদ্ধিতেও সাহায্য করতে পারে। আসুন তাহলে জেনে নেয়া  যাক, কী কী খাবারে পুরুষের শুক্রাণু পরিমাণ বাড়বে।

সংযোজনই পারে পুরুষদের শুক্রানুর পরিমাণ এবং গুণগত মান বাড়াতে। পরিসংখ্যান অনুযায়ী, পুরুষদের প্রায় এক-পঞ্চমাংশ শুক্রাণু সমস্যায় ভোগেন। কাজের চাপ, মানসিক চাপ, জীবনধারা এবং বিশেষত ভুল খাদ্যাভাস পুরুষদের অনুর্বরতার কারণ হতে পারে। তবে এই ধরনের সমস্যা হ্রাস করা যেতে পারে স্বাস্থ্যকর খাদ্যের মাধ্যমে। এছাড়া স্বাস্থ্যকর খাদ্য আপনার কামশক্তি বৃদ্ধিতেও সাহায্য করতে পারে। আসুন তাহলে জেনে নেয়া  যাক, কী কী খাবারে পুরুষের শুক্রাণু পরিমাণ বাড়বে।

ঝিনুক

এটি দস্তা সমৃদ্ধ খাবার, তাই শুক্রাণু এবং টেস্টোস্টেরন উৎপাদন বৃদ্ধিতে খুব কার্যকর। দস্তার অভাব অধিকাংশ লোকের বন্ধ্যাত্বের প্রধান কারণ হয়ে থাকে।

আরো পড়ুন: কিভাবে চিনবেন অধিক চাহিদার যৌন আবেদনময়ী মেয়ে?

পানি

পানি শুধু প্রাণ বাঁচায় না। এটা আপনার উর্বরতা বৃদ্ধি করে। বেশি করে পানি খেলে আপনার বীর্যপাতের ভলিউম বৃদ্ধি হয়, যা স্বাস্থ্যসম্মত শুক্রাণুকে উৎসাহিত করে।

কুমড়ো বীজ

কুমড়ো বীজে ওমেগা-থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড আছে, যা যৌন অঙ্গে রক্ত প্রবাহ উদ্দীপিত করতে সাহায্য করে। এগুলো কাঁচা খাওয়াই ভাল। কারণ রান্না বা প্রক্রিয়াজাত খাবার প্রয়োজনীয় পুষ্টি রোধ করে। এতেও প্রচুর পরিমাণে দস্তা আছে।

ডাল

ডাল প্রাকৃতিক ফলিক অ্যাসিডের অন্যতম উৎস, যা একটি সুস্থ শুক্রাণুর জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ উপাদান। যে সব পুরুষের শরীরে কম ফোলেট থাকে তাদের শুক্রাণুর মধ্যে ক্রোমোসোমাল খুঁত (খুব কম বা খুব বেশি) হওয়ার আশংকা থাকে।

আরো পড়ুন: নিজে খাইতে পারো না! বিয়ে করে বউকে কী খাওয়াবা?

ডালিম

ডালিম অ্যান্টি-অক্সিডেন্টে ভরপুর, যা রক্তের প্রবাহ বাড়ায়। এ ফলটি শুক্রাণুর মান উন্নত করে। এটা আপনার কামশক্তিও উন্নত করবে।

ডার্ক চকলেট

এতে শুক্রাণুর গণনা এবং তার গতিশীলতা বৃদ্ধির জন্য দারুণ কাজ করে। এটি অ্যামিনো অ্যাসিডে সমৃদ্ধ। মনে রাখবেন যত কড়া চকলেট হবে, তত ভাল ফল পাওয়া যাবে। 

টাটকা ফল ও সবজি

এতে এ, বি, সি এবং ই ভিটামিন প্রচুর পরিমাণে পাওয়া যায়। ফলে এই ধরনের খাবার খেলে উর্বরতা বাড়ে।

আখরোট

প্রতিদিন এক মুঠো আখরোট খেলে শুক্রাণুর উন্নত হয়। সেই সঙ্গে এর সক্রিয়তাও বাড়ে।

পালংশাক

ফলিক অ্যসিডে সমৃদ্ধ পালংশাক শুক্রাণুর সংখ্যা বৃদ্ধি করতে এবং তাকে ভালোভাবে কাজ করতে সাহায্য করে।

আরো পড়ুন: এমন ২০টি খাবার, যা আপনার যৌনশক্তিকে দ্বিগুণ করবে!

পানি

পানির উপকারিতা বলে শেষ করা যাবেনা। পানি শুধু প্রাণ বাঁচায় না। এটা আপনার উর্বরতা বৃদ্ধি করে। বেশি করে পানি খেলে আপনার বীর্যপাতের ভলিউম বৃদ্ধি হয়, যা স্বাস্থ্যসম্মত শুক্রাণুকে উৎসাহিত করে।

টমেটো

গাঢ় লাল রঙের টমেটো পুরুষের দেহে সন্তান জন্মদানের ক্ষমতা বাড়ায়। টমেটো খেলে পুরুষের শুক্রানুর পরিমাণ ৭০ শতাংশ পর্যন্ত বাড়ে বলে সম্প্রতি ব্রিটেনের ইনফার্টিলিটি নেটওয়ার্কের করা এক গবেষণায় এ তথ্য জানানো হয়।

গাজর

গাজরে থাকা ভিটামিন পুরুষদের স্নায়ুতন্ত্রকে শক্তিশালী করতে এবং যৌন কার্যকলাপ বৃদ্ধি করতে সাহায্য করে।

আরো পড়ুন: স্ত্রী ব্রা খুললেই স্বামী হওয়া যায় না!

কুমড়ো বীজ

কুমড়ো বীজে ওমেগা-থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড আছে, যা যৌন অঙ্গে রক্ত প্রবাহ উদ্দীপিত করতে সাহায্য করে। এগুলো কাঁচা খাওয়াই ভাল। কারণ রান্না বা প্রক্রিয়াজাত খাবার প্রয়োজনীয় পুষ্টি রোধ করে।

ডাল

ডাল শুক্রাণুর জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ উপাদান কারণ এটি প্রাকৃতিক ফলিক অ্যাসিডের অন্যতম উৎস। যে সব পুরুষের শরীরে কম ফোলেট থাকে তাদের শুক্রাণুর মধ্যে ক্রোমোসোমাল খুব কম বা খুব বেশি হওয়ার আশংকা থাকে।

বাদাম 

বাদামে প্রচুর জিঙ্ক থাকে। এই জিঙ্ক শুক্রাণুর সংখ্যা বাড়ায় এবং শক্তিশালী শুক্রাণু তৈরি করে। যারা খাদ্যের মাধ্যমে শরীরে কম জিঙ্ক গ্রহণ করে তাদের বীর্য এবং টেস্টোস্টেরনের ঘনত্ব দুটিই কমে যায়।

ডিম

ডিম যৌন স্বাস্থ্যের জন্য অত্যন্ত উপকারী একটি খাবার। ডিমে প্রচুর পরিমাণে প্রোটিন থাকে যা শরীরের হরমোনের কার্যক্রম ঠিক রাখে এবং মানসিক চাপ কমাতে সাহায্য করে।

আরো পড়ুন: যৌনশক্তি বা কামশক্তি বৃদ্ধির ৪০টি স্মাট উপায়

টাটকা ফল ও সবজি

এতে ভিটামিন এ, বি, সি এবং ই প্রচুর পরিমাণে পাওয়া যায়। ফলে এই ধরনের খাবার লে শুক্রাণুর পরিমাণ বৃদ্ধি পায় এবং উর্বরতা বাড়ে।

আখরোট

আখরোট বীর্যের ভলিউম বাড়ায়। প্রতিদিন এক মুঠো আখরোট খেলে শুক্রাণুর উন্নত হয়, সেই সঙ্গে এর সক্রিয়তাও বাড়ে। তাছাড়া আখরোটে থাকে ওমেগা-৩, ফ্যাটি অ্যাসিড যা পুরুষ লিঙ্গে রক্তসংবহনের কাজ খুব ভালোভাবে করে।

মানুষের জীবনকে সহজ আর গতিময় করতে নানা রকম প্রযুক্তি আর ইলেক্ট্রনিক পণ্যের ব্যবহার দিন দিন বেড়েই চলছে। এসব পণ্য থেকে বিচ্ছুরিত নানা রকম রেডিয়েশন, কেমিক্যাল মিশ্রিত খাবার গ্রহণের পাশাপাশি অনিয়ন্ত্রিত জীবনযাত্রার ফলে কমে যাচ্ছে পুরুষের শুক্রাণু উৎপাদন ক্ষমতা। তাই জেনে রাখুন  সঠিক আহারই শুক্রাণুর উৎপাদন  বৃদ্ধিতে আপনাকে সাহায্য করতে পারে।

আরো পড়ুন: সব উপদেশ শুধুমাত্র স্ত্রীর প্রতি কেনো?

শুক্রাণু কমে যাওয়ার কারণ

শুক্রাণু

সাধারণত যে সকল কারণে সুক্রাণু কমে যায় তা হলো: শারীরিক ও মানসিক ধকল, অনিদ্রা, কোলে ল্যাপটপ রেখে কাজ করলে বা শুক্রাশয় গরম কিছুর সংস্পর্শে এলে, জিঙ্কের ঘাটতি বা টক্সিক বেড়ে গেলে , ধূমপান ও অতিরিক্ত মদ্যপান, ওবেসিটি বা স্থূলতা, ক্যানসার, বংশগতভাবে, হরমোন সংক্রান্ত সমস্যা, ১০) কিছু মেডিসিন ও স্টেরডের কারণেও পুরুষদের শুক্রাণু কমে ইনফার্টিলিটি দেখা দিতে পারে।

অপর্যাপ্ত স্পার্ম কাউন্ট বা শুক্রাণুর সংখ্যা অনেকেরই পরিবার পরিকল্পনায় বাধা হয়ে দাঁড়ায়। পরিসংখ্যানে উঠে এসেছে, প্রায় ৩০ থেকে ৫০ শতাংশ বন্ধ্যাত্বের জন্য পুরুষেরা দায়ী।

এ কথা অনেকেরই জানা যে, পিতৃত্বের সুখ পেতে চাইলে পুরুষের পর্যাপ্ত স্পার্ম কাউন্ট বা শুক্রাণুর সংখ্যা থাকাটা অত্যন্ত জরুরি। মদ্যপান, ধূমপান, ব্যায়াম বা শ্রমসাধ্য শরীরচর্চার মতো একাধিক বিষয় স্পার্ম কাউন্টের ওপর প্রভাব ফেলে।

১. অতিরিক্ত আঁটোসাঁটো আন্ডারওয়্যার বা অন্তর্বাস পরলে কমে যায় স্পার্ম কাউন্ট। সম্প্রতি অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটির হিউম্যান রিপ্রোডাকশন জার্নালে প্রকাশিত একটি গবেষণার ফলাফলে এমনটাই দাবি করা হয়েছে।

২. শুক্রাশয় থাকে শরীরের বাইরে। কোলের ওপর ল্যাপটপ রেখে কাজ করার ফলে উত্তপ্ত ল্যাপটপের সংস্পর্শে স্পার্মের স্বাভাবিক উৎপাদন বাধাপ্রাপ্ত হয়।

৩. মাত্রাতিরিক্ত ধূমপানের অভ্যাস শরীরে ফ্লুইডের পরিমাণ কমিয়ে দেয়। ফলে কমে আসে স্পার্ম কাউন্ট। তাছাড়া, নিকোটিন শুক্রাণুর স্বাভাবিক উৎপাদনে পরোক্ষভাবে বাধা সৃষ্টি করে।

৪. পিতৃত্বের সুখ পেতে চাইলে অতিরিক্ত মদ্যপানের অভ্যাস ত্যাগ করতে হবে। কারণ, একাধিক গবেষণায় প্রমাণ মিলেছে যে অতিরিক্ত মদ্যপানের ফলে শুক্রাণুর স্বাভাবিক উত্পাদন বাধাপ্রাপ্ত হয়। ফলে ধীরে ধীরে কমে যায় শুক্রাণুর সংখ্যা।

৫. মাত্রাতিরিক্ত কাজের চাপ শুক্রাণুর স্বাভাবিক উৎপাদনে বাধা সৃষ্টি করে।

৬. অতিরিক্ত গরম পানিতে গোসলের অভ্যাস শুক্রাশয়ের তাপমাত্রা বাড়িয়ে দেয়। ফলে শুক্রাণুর স্বাভাবিক উৎপাদন বাধাপ্রাপ্ত হয়। যে কারণে ধীরে ধীরে কমে যায় শুক্রাণুর সংখ্যা।

৭. সানস্ক্রিনের মধ্যে থাকা বিপি-২, ৩০এইচ-বিপি শুক্রাণুর সংখ্যা কমিয়ে দেয়। তাই অতিরিক্ত সানস্ক্রিন ব্যবহার এড়িয়ে চলুন।

৮. স্পার্ম কাউন্ট স্বাভাবিক রাখতে প্রয়োজন নিয়মিত সুস্থ, স্বাভাবিক যৌন জীবন। তা না হলে ধীরে ধীরে কমে যেতে পারে শুক্রাণুর সংখ্যা।

Source: Men’s Health, health, healthcare, health world, menforhealth, wikipedia, world health, etc

প্রিয় পাঠক, আপনিও সম্ভব ডটকমের অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইল বিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ ইনবক্স করুন- আমাদের ফেসবুকে SOMVOB.COM  লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here