হস্তমৈথুন বাদ দিলে ঘন ঘন স্বপ্নদোষ হয়?

0
350

আপনি  প্রশ্ন হলো হস্তমৈথুন বাদ দিলে  ঘন ঘন স্বপ্নদোষ হয় কেন?

লজ্জা নয় জানতে হবে। আসলে আপনি অতিরিক্ত হস্তমৈথুন করেছিলেন এবং তা কয়েক মাস বা বছর  স্থায়ী ছিলো আর এতো দিন হস্তমৈথুন করার কারনে আপনার অন্ডকোষ বীর্য তৈরি ঠিকি করে কিন্তু  বীর্যথলীতে বীর্য ধরে রাখার ক্ষমতা কমে গেছে ফলে হস্তমৈথুন  করা ছেড়ে দেওয়াতে বীর্যথলীর বীর্য গুলো  লিঙ্গ সামান্য উত্তেজনায় ও রাতে ঘুমের ঘোড়ে বীর্যপাত হচ্ছে।

আরো পড়ুন: যে কারণে অল্প বয়সে যৌন ক্ষমতা হারিয়ে যায়! যৌনতা বৃদ্ধিতে ২০টি…

যার প্রভাবে শরীর শুকিয়ে যাচ্ছে, মাথা ব্যথা করে সামান্য একটু বেশি কথা বললেই,বসে থেকে উঠলেই মাথা ঘোড়ে,শরীর দুর্বল লাগে ইত্যাদি সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছেন। ইহা এক প্রকার রোগ বলতে পারেন যা হলো মেহ  অথবা ধাতুদূর্বলাতা যার কারণে আপনার এই সমস্যা । আপনি হস্তমৈথুন করা ছেড়ে দিয়েছেন ভালো কথা তবে পর্নোগ্রাফি দেখা বন্ধ করতে হবে এবং এ অবস্থায় যতই ঘন ঘন স্বপ্নদোষ হোক না কেনো কোন সমস্যা নেই আর হস্তমৈথুন করার ইচ্ছা জাগলেও তা করবেন না তখন অন্য দিকে মনযোক দিবেন । এছাড়াও কিছু নিয়ম মেনে চলবেন প্রতিদিন যা হলো।

সপ্নদোষ দূর করতে যা করবেন

 সপ্নদোষ দূর করতে যা করবেন

হস্তমৈথুন করবেন না। ব্যায়াম করবেন। 

লিঙ্গ উত্তেজিত হলে লিঙ্গে হাত দিবেন না। বা লিঙ্গ উত্তেজিত হলে হাটাহাটি করবেন। 

একাই রাতে ঘুমাবেন না। 

আরো পড়ুন: এমন ২০টি খাবার, যা আপনার যৌনশক্তিকে দ্বিগুণ করবে!

পর্নগ্রাফী দেখবেন না । 

যৌন বিষায়ক চিন্তাভাবনা করবেন না। 

বন্ধুত্ব পূর্ণ সুস্থ সুন্দর সম্পর্ক সৃষ্টি করবেন। 

কোন পর্নগ্রাফী দেখবেন না শোয়ার আগে বা শোয়ার সময়। 

ঢিলাঢালা পোশাক পড়বেন সব সময়। 

আরো পড়ুন: যৌনমিলন কোন বয়সে হওয়া খুব বেশি জরুরী?

টাইট আন্ডারওয়ার পরবেন না।  

দুঃশ্চিন্তা কমাবেন ।  

পর্যাপ্ত পরিমানে ঘুম ও বিশ্রাম নেবেন। 

বেশি করে পানি পান করবেন। 

সকালে খালিপেটে ইসুবগুলের ভুসির শর্বত খাবেন যা আগেই রাতে ভিজিয়ে রাখবেন।( অবশ্যই ভুসিটি  প্যাকেটজাত করা ক্রয় করবেন) 

নিয়মিত স্বাস্থ্যকর ও পুষ্টিকর খাদ্যখাবেন। 

আপনার যদি ধুমপান বা মদ্যপাদের এর অভ্যাস থাকলে তা পরিহার করুন আস্তে আস্তে। 

আরো পড়ুন: কিভাবে চিনবেন অধিক চাহিদার যৌন আবেদনময়ী মেয়ে?

ধর্মীয় অনুশাসন মেনে চলুন।  

রাতে বেশি পানি পান করবেন না। 

শুধু বাম কাদ ও ডান কাদ হয়ে ঘুমাবেন। 

লিঙ্গ বিছানার সাথে ঘসানোর চেস্ট করবেন না।  

রাতে কম খাবার খাবেন খাবার খাওয়ার পর হাটাহাটি করুন। খাওয়ার সাথে সাথে ঘুমাতে যাবেন না। 

ঘুমাতে যাবার আগে প্রস্রাব করে নিন। এবং ঘুমানোর আগে প্রস্রাবের চাপ আসলে প্রস্রাব করে নিবেন।  

রাতে মাছ, মাংস, দুধ, শিদ্ধডিম খাবেন না। ইহা দুপুরবেলা খাবেন অবশ্যই । 

উপরোক্ত নিয়ম গুলো মেনে চললে ইনশাআল্লাহ এই ধরণের সমস্যা আর হবে না। যদি উপরোক্ত নিয়ম গুলো আপনার বিয়ের করার পূর্বমুহূর্ত পর্যন্ত মেনে চলেন তাহলে বাবা হতে পারবেন ইনশাআল্লাহ্‌। তবে যেহেতু এখন ঘন ঘন স্বপ্নদোষ হচ্ছে তাহলে একজন হোমিওপ্যাথিক ডাক্তারের চিকিৎসা নিবেন আর উপরোক্ত নিয়ম গুলো অবশ্যই মেনে চলবেন এবং হোমিওপ্যাথিক ডাক্তারের চিকিৎসা গ্রহন করতে হবে। শুধু ঔষধ খাওয়ার মাধ্যমেই মেহ বা স্বপ্নদোষ থেকে  মুক্তি পাবেন না যদি উক্ত নিয়ম গুলো মেনে না চলেন। ধন্যবাদ ।

আরো পড়ুন: স্ত্রী ব্রা খুললেই স্বামী হওয়া যায় না!


[ প্রিয় পাঠক, আপনিও সম্ভব ডটকমের অনলাইনের অংশ হয়ে উঠুন। লাইফস্টাইলবিষয়ক ফ্যাশন, স্বাস্থ্য, ভ্রমণ, নারী, ক্যারিয়ার, পরামর্শ, এখন আমি কী করব, খাবার, রূপচর্চা ও ঘরোয়া টিপস নিয়ে লিখুন এবং সংশ্লিষ্ট বিষয়ে ছবিসহ ইনবক্স করুন- আমাদের ফেসবুকে প্রতিদিনের স্বাস্থ্য টিপস লেখা আপনার নামে প্রকাশ করা হবে। ]


LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here